১৮ই জুন, ২০১৯ ইং | ৪ঠা আষাঢ়, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ | দুপুর ১:২১

কাহালুতে ৬ বিঘা জমির ফসল নষ্ট, বাধা দেয়ায় দুই বৃদ্ধা রক্তাক্ত

 

এম নজরুল ইসলাম,বগুড়া : বগুড়ার কাহালুতে জমিজমা সংক্রান্ত বিরোধে ৬ বিঘা জমির ফসল (ধান) হাল টেনে নষ্ট করেছে প্রতিপক্ষরা। বাধা দিতে গেলে দুই বৃদ্ধা নারীকে বেধরক মারপিট করে রক্তাক্ত করার ঘটনা ঘটেছে।আহত দুই নারী হলেন, আনোয়ারা বেগম (৫৮) ও লিলি খাতুন (৬৫)। শনিবার দুপুরে কাহালু উপজেলার জামগ্রাম ইউনিয়নের বাখরা পানাই এলাকায় এঘটনা ঘটে। আহত আনোয়ারা বেগমকে স্থানীয়ভাবে চিকিৎসা দেয়া হলেও আহত লিলি খাতুনের অবস্থা আশংকাজনক। রক্তাক্ত অবস্থায় তাকে কাহালু হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। মারপিটের শিকার হয়েছেন নারী সহ আরো অন্তত ৭-৮ জন।

স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, বাখরা পানাই মাঠে ৬ বিঘা জমিতে পূর্বের ন্যায় আনোয়ারা ও লিলি খাতুন সহ ৯ জন মিলে পৃথক পৃথকভাবে প্রায় দুই মাস আগে ধান রোপন করে চাষ করছেন। সেই জমিতে পাওয়ার ট্রিলার দিয়ে হাল টেনে ফসল নষ্ট করেছে প্রতিপক্ষরা।

মারপিটে আহত আনোয়ারা বেগম অভিযোগ করে বলেন, পূর্ব বিরোধের জের ধরে শনিবার দুপুরে প্রতিপক্ষ লাল মোহাম্মদ, মোহন চাঁন, মুমিন, সাধন, বারী সহ ২০-২৫ জন সন্ত্রাসী লাঠিসোটা ও ধারালো অস্ত্র হাতে উপস্থিত হয়ে পাওয়ার ট্রিলার দিয়ে আমাদের ধানী জমির ফসলে হাল দিয়ে নষ্ট করেছে।

বাধা দিতে গেলে ওরা আমাদের বেধরক মারপিট করে। চিৎকার করলে শীলতাহানির চেষ্টা করে। ধস্তাধস্তি করে সটকে গিয়ে চিৎকার করি। ঘটনার সময় আমাদের বাড়িতে পুরুষ মানুষ ছিলনা। চিৎকার শুনে গ্রামের লোকজন এগিয়ে এলে সন্ত্রাসীরা আমাদের প্রাণে মেরে ফেলার হুমকি দিয়ে বলে, থানায় মামলা করবি এত সোজা না। থানায় বলেই এসেছি।

যদি কোথাও অভিযোগ করিস, তোদের পরিবারের কেউ বেঁচে থাকবে না। হুমকি দিয়ে প্রকাশ্যে ঘটনাস্থল ত্যাগ করে সন্ত্রাসীরা।এপ্রসঙ্গে কাহালু থানার পুলিশ পরিদর্শক (ওসি) শওকত কবির বলেন, বিষয়টি বিভিন্ন মাধ্যমে মৌখিকভাবে শুনেছি। অভিযোগ পেলে আইনী ব্যবস্থা নেয়া হবে।

কিউএনবি/রেশমা/৯ই সেপ্টেম্বর, ২০১৮ ইং/সকাল ৯:৫৯

Please follow and like us:
0
Social media & sharing icons powered by UltimatelySocial