২৫শে এপ্রিল, ২০১৯ ইং | ১২ই বৈশাখ, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ | বিকাল ৪:০৪

কারাগার থেকে বেরিয়ে যা বললেন খালেদা জিয়ার আইনজীবী

 

ডেস্ক নিউজ : বিএনপির চেয়ারপারসন খালেদা জিয়াকে ২৪ ঘণ্টার মধ্যে বিশেষায়িত হাসপাতালে নেয়ার দাবি জানিয়েছেন সুপ্রিমকোর্ট আইনজীবী সমিতির সভাপতি জয়নুল আবেদীন।তিনি বলেন, ‘আগে তার চিকিৎসার ব্যবস্থা করুন, তারপর তাকে বিচারের কাঠগড়ায় দাঁড় করান।’

শুক্রবার রাজধানীর নাজিমউদ্দিন রোডের পুরনো ঢাকা কেন্দ্রীয় কারাগারে বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়ার সঙ্গে সাক্ষাত শেষে জয়নুল আবেদীন এ দাবি জানান।

জয়নুল আবেদীন বলেন, ‘আজ সাক্ষাতে ম্যাডামকে যেভাবে দেখেছি তাতে তিনি কীভাবে আগের দিন আদালতে এসেছেন সেটা ভাবছি। তিনি বাম হাত নাড়াতে পারেন না। বাম পাশ পুরো অবশ হয়ে গেছে। চোখেও প্রচণ্ড ব্যথা হয়। চোখের ভবিষ্যত কী সেটা বলা যাচ্ছে না।’

জয়নুল আবেদীন বলেন, ‘আমরা মনে করি কারাগারের ভেতরে রেখে তাকে চিকিৎসা না দেয়ায় এই অবস্থা হয়েছে। তাই আমরা মনে করি আগামী ২৪ ঘণ্টার মধ্যে তাকে বিশেষায়িত হাসপাতালে নেয়া হোক। ইউনাইটেড, অ্যাপোলো বা যে কোনো বেসরকারি বিশেষায়িত হাসপাতালে ভর্তি করা হোক।’

খালেদা জিয়ার এ আইনজীবী বলেন, ‘আগে চিকিৎসা তারপর বিচার। খালেদা জিয়ার বিচার পাওয়ার অধিকার রয়েছে। তিনি তিনবারের সাবেক প্রধানমন্ত্রী।’

এদিন বিকালে ব্যারিস্টার জমির উদ্দিন সরকারের নেতৃত্বাধীন বিএনপিপন্থী চার আইনজীবী খালেদা জিয়ার সঙ্গে দেখা করতে কারাগারে যান। অন্য আইনজীবীরা হলেন- আব্দুর রেজ্জাক খান, এজে মোহাম্মদ আলী এবং জয়নাল আবেদীন।

উল্লেখ্য, জিয়া দাতব্য ট্রাস্ট দুর্নীতির মামলার শুনানি এতদিন চলছিল কারাগারের কয়েকশ গজ দূরে বকশীবাজারে আলিয়া মাদ্রাসাসংলগ্ন কারা অধিদফতরের মাঠে বিশেষ এজলাসে।

নিরাপত্তার কারণ দেখিয়ে গত মঙ্গলবার আইন মন্ত্রণালয় এক প্রজ্ঞাপনে পুরান ঢাকার কেন্দ্রীয় কারাগারের প্রশাসনিক ভবনের ৭ নম্বর কক্ষকে আদালত ঘোষণা করে সেখানেই দাতব্য ট্রাস্ট দুর্নীতির মামলার শুনানি করার নির্দেশ দেয়। এরপর বুধবার সেই আদালত বর্জন করেন খালেদা জিয়ার আইনজীবীরা।

এ কারাগারেই আরেকটি ভবনের দোতলার একটি কক্ষে গত সাত মাস ধরে বন্দি রয়েছেন সাবেক প্রধানমন্ত্রী খালেদা জিয়া। জিয়া অরফানেজ ট্রাস্ট দুর্নীতির মামলায় গত ৮ ফেব্রুয়ারি একই বিচারক তাকে পাঁচ বছর কারাদণ্ড দেন।

 

 

কিউএনবি/অায়শা/৭ই সেপ্টেম্বর, ২০১৮ ইং/রাত ৯:২০