২১শে নভেম্বর, ২০১৮ ইং | ৭ই অগ্রহায়ণ, ১৪২৫ বঙ্গাব্দ | রাত ৮:০৩

উত্তাল বঙ্গোপসাগরে ট্রলার ডুবিতে ছয় জেলে নিখোঁজ

 

ডেস্ক নিউজ : বঙ্গোপসাগর উত্তাল হয়ে উঠেছে। গভীর সমুদ্রে টিকতে না পেরে মাছ ধরা বন্ধ করে অনেক ট্রলার তীরে আসতে শুরু করেছে। আবার অনেক জেলেরা জীবনের ঝুঁকি নিয়ে এখনও গভীর সমুদ্রে মাছ শিকার করছে। বৃহস্পতিবার সকাল থেকে উপজেলার শিববাড়িয়া নদীতে মৎস্যবন্দর আলীপুর-মহিপুর আড়ৎ ঘটে সহস্রাধিক মাছ ধরার ট্রলার আশ্রয় নিয়েছে। উত্তাল ঢেউয়ের তোরে জোরার বয়া এলাকায় এফবি ইলিয়াস ট্রলার ডুবে গেছে। নিমজ্জিত ট্রলারের ৭ জনকে উদ্বার করলেও ৬ জেলে নিখোঁজ রয়েছে। বুধবার রাতে গভীর সমুদ্র থেকে তীরে আসার পথে জোরার বয়া এলাকায় উত্তাল ঢেউয়ের তোরে এই ট্রলারটি নিমজ্জিত হয় বলে উদ্বার হওয়া ট্রলারের মাঝি মনির জানিয়েছে।  

ট্রলার ডুবির ঘটনায় আবদুল কাদের (৩৮), মাহাবুব (২৮), সাইফুল (২৫), ইব্রাহিম খান (২৫), সিদ্দিক হাওরাদার (৩০) এবং আল-আমিন (২৬) নিখোঁজ রয়েছে। এদের বাড়ি কলাপাড়া ও  বরগুনা এলাকার বিভিন্ন গ্রামে। 

একই রাতে জেলেরা তীরে আসার পথে আলীপুর মৎস্য আড়তদার সমিতির সভাপতি আনছার উদ্দিন মোল্লার মালিকানাধীন একটি মাছ ধরার ট্রলার ১৬ জন জেলেসহ সুন্দরবন সংলগ্ন সমুদ্রে নিমজ্জিত হয়। এসময় অপর একটি ট্রলার জেলেদের উদ্ধার করে মৎস্য বন্দরে নিয়ে আসলেও ট্রলারটি উদ্ধার করা সম্ভব হয়নি বলে স্থানীয় জেলেরা জানিয়েছেন।

জেলেদের সাথে কথা বলে জানা গেছে, বুধবার সকাল থেকে বৃহস্পতিবার গভীর রাত পর্যন্ত মাছ ধরার নৌকা ও ট্রলারগুলো উপকূলে এসে আশ্রয় নিয়েছে। তবে এখন কিছুসংখ্যক মাছ ধরার ট্রলার তীরে এসে পৌঁছাতে পারেনি। জেলেরা বরফ, তৈল ও দৈনন্দিন বাজার নিয়ে গভীর সমুদ্রে মাছ ধরতে গেলেও বৈরী আবহাওয়ার কারণে তাদের ফিরে আসতে হয়েছে। মৎস্য বন্দর আলীপুর-মহিপুর শিববাড়িয়া নদীতে দেশের বিভিন্ন এলাকার সহস্রাধিক মাছ ধরার ট্রলার পোতাশ্রয় নিয়েছে। 

এদিকে আবহাওয়া অধিদপ্তর ৩ নং স্থানীয় সতর্কতা সংকেত জারি করেছে বলে জানা গেছে। 

সাগর থেকে ফিরে আসা জেলে সোহরাফ হোসেন বলেন, সাগর উত্তাল হওয়ার কারণে আমাদের ট্রলারের মাঝি মাল্লা সবাই বমি করেছে। মনে করছিলাম কূলে ফিরতে পারবো না, ট্রলার সমুদ্রে পরে যাবে।  

কুয়াকাটা ও আলীপুর মৎস্য আড়তদার সমবায় সমিতির সভাপতি মো.আনছার উদ্দিন মোল্লা জানান, হঠাৎ সাগর উত্তাল হয়ে ওঠে। জেলেরা সমুদ্রে টিকতে না পেরে নিরাপদে আশ্রায় নিয়েছে। তবে তীরে ফেরার পথে আমার ট্রলারটি ডুবে গেছে। অন্য একটি ট্রলার মাঝি মাল্লাদের ঘাটে নিয়ে এসেছে। আবহওয়া ঠিক হলে ফের ওই সব মাছ ধরা ট্রলার সাগরে রওনা করবে বলে তিনি সাংবাদিকদের জানিয়েছেন।

কিউএনবি/অনিমা/৭ই সেপ্টেম্বর, ২০১৮ ইং /৪:৩৯