১৫ই নভেম্বর, ২০১৮ ইং | ১লা অগ্রহায়ণ, ১৪২৫ বঙ্গাব্দ | রাত ৩:৪৭

চৌগাছায় আইনশৃঙ্খলা বাহিনী কর্তৃক নাম ঠিকানা সংগ্রহে আতংকিত জামায়াত-বিএনপি নেতা-কর্মীরা

 

রহিম,চৌগাছা (যশোর) সংবাদদাতা : যশোরের চৌগাছায় আইনশৃঙ্খলা বাহিনী পুলিশ ও বিভিন্ন গোয়েন্দা সংস্থা কর্তৃক বিএনপি-জামায়াতের নেতা-কর্মীদের নাম-ঠিকানা ও মুঠোফোনের নম্বর সংগ্রহ করা হচ্ছে। একারণে নেতা কর্মীদের মধ্যে নতুন করে অতংক ছড়িয়ে পড়েছে।

আইনশৃঙ্খলা বাহিনী সূত্রে জানাযায়, উর্দ্ধতন কর্তৃপক্ষের সিদ্ধান্তে ২০০৮ সালে অনুষ্ঠিত নবম জাতীয় সংসদ নির্বাচনে চৌগাছায় ৮০টি কেন্দ্রে ভোট গ্রহণ করা হয়েছিল।এসব কেন্দ্রে সে সময়ের জোট প্রার্থী পক্ষে যারা এজেন্টের দায়িত্ব পালন করেছিলেন তাদের নাম-ঠিকানা ও মোবাইল নম্বর সম্বলিত তালিকা তৈরি করা হচ্ছে।

একইসাথে একাদশ নির্বাচনে প্রাথমিকভাবে উপজেলার যে ৮১টি কেন্দ্রে ভোট গ্রহণ করা হবে সেসব কেন্দ্রের পাশে যেসকল বিএনপি-জামায়াত নেতাকর্মীদের বাড়ি তাদেরও তালিকা হচ্ছে।গত দু’দিনে পুলিশ এবং জাতীয় গোয়েন্দা সংস্থার (এনএসআই) কর্মকর্তারা এই নম্বর ও ঠিকানা সংগ্রহ করছেন।

সূত্রটি জানায় খুব’ই দ্রুত এবং নির্ভুলভাবে তালিকা করার জন্য নির্দেশনা এসেছে।একারণে স্থানীয় জনপ্রতিনিধি, সাংবাদিক ও বিভিন্ন সোর্সের মাধ্যমে নির্ভুল তালিকা ও মোবাইল নম্বর সংগ্রহের কাজ করছেন।

এই তালিকা এবং ফোন নম্বর সংগ্রহের বিষয়টি নিয়ে বিএনপি-জামায়াতের নেতা-কর্মীদের মধ্যে নতুন করে আতংক ছড়িয়ে পড়েছে।নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক কয়েকজন বিএনপি ও জামায়াত নেতা বলেছেন, গত দুদিনে এক রকম কর্মীদের প্রশ্নের মুখে পড়তে হয়েছে তাদের।তারা জানিয়েছেন, কর্মীরা হতাশা ও আতংকগ্রস্থ হয়ে আমাদের কাছে বিষয়টি নিয়ে জানতে চাচ্ছেন।আমরা তাদের যথাসাধ্য উত্তর দেয়ার চেষ্টা করছি।তবে এ সকল নেতার কেউই উদ্ধৃত হতে রাজি হননি।

উল্লেখ্য দশম জাতীয় সংসদ নির্বাচনের পূর্ব থেকে বিএনপি-জামায়াতের আন্দোলনের সময় থেকে চলতি বছর পর্যন্ত উপজেলায় প্রায় অর্ধশতাধিক নাশকতার মামলায় বিএনপি-জামায়াতের দুই শহস্রাধিক নেতা-কর্মী আসামী হয়েছেন।এ কারণে তারা নাম ঠিকানা এবং মোবাইল নম্বর সংগ্রহের খবরে অতংকিত হয়ে পড়ছেন।

 

 

 

 

 

কিউএনবি/সাজু/৪ঠা সেপ্টেম্বর, ২০১৮ ইং/সন্ধ্যা ৬:২১