২৩শে সেপ্টেম্বর, ২০১৮ ইং | ৮ই আশ্বিন, ১৪২৫ বঙ্গাব্দ | রাত ১০:২১

লক্ষ্মীপুরে এখনো উদ্ধার হয়নি অপহৃত মেধাবী ছাত্রী মাইসা

মু.ওয়াছীঊদ্দিন,লক্ষ্মীপুর প্রতিনিধি :লক্ষ্মীপুরে অপহরণের এক সপ্তাহ পরেও অপহৃত মেধাবী স্কুল ছাত্রী ইসরাত জাহান মাইসাকে উদ্ধার ও অপহরণে অভিযুক্ত মুল আসামীকে গ্রেফতার করতে পারেনি পুলিশ। গত ২৫ আগস্ট সন্ধ্যায় চন্দ্রগঞ্জের চরশাহী ইউনিয়নের নিজ বাড়ী থেকে তাকে অপহরণ করা হয়। অপহৃত মাইসা স্থানীয় চরশাহী উচ্চ বিদ্যালয়ের ১০ম শ্রেণীর বিজ্ঞান বিভাগের ছাত্রী। সে প্রাথমিক সমাপনী ও জে. এস সি পরীক্ষায় জিপিএ-৫ অর্জন কারী এবং ওই এলাকার মো. আব্দুল অহিদের মেয়ে।
মামলা সুত্রে জানা যায়, স্কুলে আসা যাওয়ার পথে বিভিন্ন সময়ে ইসরাত জাহান মাইসাকে উত্ত্যক্ত করে অসছিল স্থানীয় নুরুল্লাপুর গ্রামের আবুল খায়েরের ছেলে মো. মামুন। বিষয়টি মামুনের পরিবারকে মাইসার বাবা অবহিত করেন। এতে মামুন ক্ষিপ্ত হয়ে উঠে অপহরণের পরিকল্পনা করে। তারই অংশ হিসেবে গত ২৫ আগস্ট সন্ধ্যায় মাইসা প্রকৃতির ডাকে সাড়া দিতে ঘর থেকে বের হলে মামুন ও তার সহযোগী রাকিবসহ ৮/১০ জন তাকে জোর পূর্বক অপহরণ করে অজ্ঞাত স্থানে নিয়ে যায়।
এ ঘটনায় অপহৃতার বাবা প্রথমে চন্দ্রগঞ্জ থানায় নিখিত অভিযোগ ও পরে ২৯ আগস্ট মামলা দায়ের করেন।অপহৃতার বাবা মো. আব্দুল অহিদ শনিবার (১ সেপ্টেম্বর) বলেন, ‘আমার মেধাবী কন্যাকে তারা অপহরণ করে নিয়ে গেছে। বর্তমানে আমরা চরম উদ্বেগ উৎকন্ঠায় আছি। অপহরণের পর তাকে যৌন নির্যাতন ও নারী পাচারকারী চক্রের কাছে বিক্রি করে দেওয়ার আশঙ্কা রয়েছে। আমরা এ বিষয়ে সরকারের সহযোগীতা কামনা করছি।
এব্যাপারে জানতে চাইলে চন্দ্রগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা আবুল কালাম আজাদ বলেন, থানায় অপহরণ মামলা নেওয়া হয়েছে। রাকিব নামের এক অভিযুক্তকে গ্রেফতার করে কারাগারে পাঠানো হয়েছে। ভিকটিমকে উদ্ধার ও অন্যদের গ্রেফতারের চেষ্টা চলছে।
কিউএনবি/রেশমা/৩রা সেপ্টেম্বর, ২০১৮ ইং/সকাল ১০:০০