১৮ই নভেম্বর, ২০১৮ ইং | ৪ঠা অগ্রহায়ণ, ১৪২৫ বঙ্গাব্দ | রাত ১:২৬

বাগাতিপাড়ায় বকুল স্মৃতি থিয়েটারের যাত্রা পালা মঞ্চস্থ

 

মোঃ মাজহারুল ইসলাম,লালপুর (নাটোর) প্রতিনিধি : কালের বিবর্তনে এবং প্রযুক্তির উৎকর্ষে, আকাশ সাংস্কৃতির আগ্রাসনে বাঙালি সংস্কৃতির ঐতিহ্য যাত্রাপালা আজ হারিয়ে যেতে বসেছে।আর গ্রামীন এই ঐতিহ্যকে ধরে রাখতে নাটোরের বাগাতিপাড়া উপজেলায় বকুল স্মৃতি থিয়েটার শনিবার রাতে উপজেলার কৃষ্ণপুর গ্রামে গিরিশ ধাম সংলগ্ন মঞ্চে মঞ্চস্থ করে ঐতিহাসিক যাত্রাপালা ‘পরাজিত সম্রাট’।

বকুল স্মৃতি থিয়েটার ও স্থানীয় শিল্পীদের অংশ গ্রহনে অনুষ্ঠিত যাত্রাপালা দেখতে দর্শক উপস্থিতিও ছিল বেশ চোখে পড়ার মতো।দর্শক জহির উদ্দিন (৬৫) জানান, অশ্লিলতার কারনে দেশ থেকে সার্কাস,যাত্রাপালা উঠেই গেছে, তবে স্থানীয় ভাবে মঞ্চস্থ এ যাত্রাপালায় নেই কোন অশ্লিলতা, ‘পরাজিত সম্রাট’ একটি ঐতিহাসিক যাত্রাপালা তাই আমরা সপরিবারে দেখতে এসেছি, খুব ভালো লাগছে।

হিরেন্দ্র কৃষ্ণ দাস এর রচনায় বাংলাদেশ গ্রাম থিয়েটারের ইলামিত্র অঞ্চলের সমন্বয়কারী মসগুল হোসেন ইতির পরিচালনায় যাত্রাপালায় বিভিন্ন চরিত্রে অভিনয় করেছেন দেবাশীষ কুন্ডু, শহিদুল ইসলাম, জালাল উদ্দিন, মিজানুর রহমান, মালেক, কাশেম, চায়না মুখার্জী, রত্না সেনসহ ১১জন স্থানীয় শিল্পী।

পরিচালক মসগুল হোসেন ইতি জানান, ইতিহাস ভিত্তিক ‘পরাজিত সম্রাট যাত্রাপালা’র কাহিনী ও শিল্পীদের অভিনয় দর্শকদের মন জয় করেছে।বকুল স্মৃতি থিয়েটারের সভাপতি মাহবুব হোসেন জানান ‘আমরা চাই মানুষ আকাশ সংস্কৃতির উন্মাদনা ভুলে আবারও রাত জেগে মঞ্চ নাটক ও যাত্রাপালা দেখুক’। দর্শকরা জানান, যাত্রাপালায় অশ্লিলতা ঢুকে পড়ায় সাধারণ দর্শকরা যাত্রাপালা থেকে বিমুখ হয়েছিল,সুস্থ যাত্রাপালা দেখতে এখনো দর্শকের অভাব হবেনা।

 

 

 

কিউএনবি/সাজু/২রা সেপ্টেম্বর, ২০১৮ ইং/রাত ৯:১৫