১৪ই নভেম্বর, ২০১৮ ইং | ৩০শে কার্তিক, ১৪২৫ বঙ্গাব্দ | সকাল ৬:৩১

৩৬ বছর পর শূন্য হাতেই শেষ হলো বাংলাদেশের এশিয়ান গেমস

 

স্পোর্টস ডেস্ক : এশিয়ান গেমসের ইতিহাসে দীর্ঘদিন পর শূন্য হাতে বাড়ি ফিরল বাংলাদেশ দল। গত ১৮ আগস্ট থেকে শুরু হয়েছিল এশিয়ান গেমস। শেষ হবে ২ সেপ্টেম্বর। তবে গেমস শেষ হওয়ার আগেই বাংলাদেশ সব ইভেন্ট শেষ করে বিদায় নিল।দীর্ঘ ৩৬ বছর পর শূন্য হাতে ফিরছে বাংলাদেশ দল। ১৮তম এশিয়ান গেমসের মোট ১৪টি ক্রীড়া ইভেন্টে ১১৭ জন অংশ নিয়েছে বাংলাদেশ থেকে। কোনো ইভেন্টেই স্বপ্ন পূরণ করতে পারেননি বাংলাদেশের অ্যাথলেটরা। অনেকেই এমনকি নিজেদের সেরাটাও স্পর্শ করতে পারেননি।

এশিয়ান গেমসে বাংলাদেশ অংশ নিচ্ছে ১৯৭৮ সাল থেকে। প্রথম দুই আসরে পদকশূন্য ছিল বাংলাদেশ দল। তবে পরের প্রতিটা গেমসেই অন্তত একটি হলেও পদক জিতেছে। ১৯৮৬ সালে সিউল গেমসে লাইট হেভিওয়েটে তামা জিতেছিলেন মোশাররফ হোসেন। তার দেখানো পথ ধরে একে একে আরও ১১টি পদক জিতে বাংলাদেশ। এর মধ্যে ২০১০ সালে ক্রিকেটে সোনা জয়ের ঘটনাটিও রয়েছে। এটাই এশিয়ান গেমসে বাংলাদেশের একমাত্র সোনা। 

এশিয়ান গেমসে অর্জিত পদকগুলোর বেশিরভাগই এসেছে কাবাডি থেকে। এই ক্রীড়া ইভেন্টে ৭টি পদক জিতেছে বাংলাদেশ। পাঁচটি জিতেছে ছেলেরা। দুটি মেয়েরা। ক্রিকেট থেকে পদক এসেছে চারটি। ছেলেরা দুটি এবং মেয়েরা দুটি। ১৯৮৬ সাল থেকে ২০০৬ পর্যন্ত প্রতি গেমসেই একটি করে পদক জিতেছে বাংলাদেশ। ২০১০ ও ২০১৪ সালে তিনটি করে পদক জিতে লাল-সবুজের পতাকাবাহীরা। দীর্ঘদিন ধরেই পদক জয়ের ধারাবাহিকতা ধরে রেখেছিল বাংলাদেশ। 

এবার ১১৭ জন অ্যাথলেট নিয়েও শূন্য হাতে ফিরতে হলো বাংলাদেশকে। এবারের এশিয়ান গেমসে ৪৫টি দেশের ১১ হাজার ৭২০ জন অ্যাথলেট অংশ নিয়েছে ৪০টি ডিসিপ্লিনের ৪৬৫টি ইভেন্টে। ৪৫টি দেশের মধ্যে ৩৭টি দেশই কোনো না কোনো ইভেন্টে পদক জয় করেছে। পদক জয়ের তালিকায় শীর্ষে আছে চীন। তারা ১০০টি সোনাসহ ২১৪টি পদক জয় করেছে।

 

 

কিউএনবি/আয়শা/২রা সেপ্টেম্বর, ২০১৮ ইং/বিকাল ৫:৩৮