১৮ই নভেম্বর, ২০১৮ ইং | ৪ঠা অগ্রহায়ণ, ১৪২৫ বঙ্গাব্দ | রাত ১:৫৫

শিবলী সাদিক এমপির যোগ্য নেতৃত্বে দিনাজপুর ৬ আসন, আওয়ামী লীগের ঘাঁটিতে পরিণত

 

নবাবগঞ্জ (দিনাজপুর) থেকে এম এ সাজেদুল ইসলাম (সাগর) : দিনাজপুর -৬ আসন নবাবগঞ্জ, বিরামপুর, হাকিমপুর, ঘোড়াঘাট উপজেলা নিয়ে গঠিত। ৪টি উপজেলা,৩টি পৌরসভা ও ২৩টি ইউনিয়ন নিয়ে সংসদীয় আসন-১১ দিনাজপুর-৬ । এ এলাকা এক সময়ে বিএনপি, জামায়াতের দুর্গে পরিনত ছিল। কিন্তু সাবেক সংসদ সদস্য মরহুম মোস্তাফিজুর রহমান ফিজু এর সুযোগ্য সন্তান সাবেক ছাত্রনেতা নবাবগঞ্জ উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি জাতীয় সংসদ সদস্য মোঃ শিবলী সাদিক এমপি এর যৌগ্য নেতৃত্বের কারনে আসনটি আওয়ামীলীগের ঘাটিতে পরিণত হয়েছে। 

১৯৮২ সালের ২৮শে আগস্ট নবাবগঞ্জ উপজেলার ৯নং কুশদহ ইউনিয়নের ইসলাম পুর মৌজার আফতাবগঞ্জ বাজারের সমভ্রান্ত মুসলিম আফতাব পরিবারে জন্ম গ্রহণ করেন। তিনি আফতাবগঞ্জের চান্দের হাট সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় লেখাপড়া শুরু করেন। এরপর আফতাবগঞ্জ বি ইউ উচ্চ বিদ্যালয় ১৯৯৮ সালে মাধ্যমিক পাস করে ঢাকা আইডিয়াল স্কুল এন্ড কলেজে উচ্চ মাধ্যমিক পাশ করার জন্য ভর্তি হয়ে বিএনপি জোট সরকারের ক্লিনহার্ট অপারেশনের সময় এমপির ছেলে হওয়ায় তার নামে ১৮ টি মামলা হওয়ায় থেমে যায় তাঁর পড়াশোনা। পরে আফতাবগঞ্জ ডিগ্রী কলেজ হতে এইচ.এস.সি পাশ করে ২০১০ সালে বি.এস.এস পাস করেন।

১৯৯৬ সালে তার প্রয়াত পিতা মোস্তাফিজুর রহমান এমপি ছিলেন। পিতার অকাল মৃত্যুতে রাজনীতিতে নিজেকে আতœপ্রকাশ করে ২০০৩ সালে নবাবগঞ্জ উপজেলা শাখা ছাত্রলীগের সহ-সভাপতি নির্বাচিত হন। এরপর ২০০৯ সালের ২২ জানুয়ারি উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে উপজেলা চেয়ারম্যান, ২০১২ সালের ১৪ ই ডিসেম্বর আওয়ামী লীগের ত্রি-বার্ষিক কাউন্সিলে বিপুল ভোটে জয়ী হয়। নবাবগঞ্জ উপজেলা শাখা আওয়ামী লীগের সভাপতি এবং সর্বশেষ ২০১৪ সালের ৫ জানুয়ারি জাতীয় সংসদ নির্বাচনে এমপি নির্বাচিত হয়েছেন ।

এলাকায় তার বেপক জনপ্রিয়তা ও সুনাম রয়েছে। শিবলী সাদিক এমপির যৌগ্য নেতৃত্বের কারনে বদলে গেছে আওয়ামীলীগ। ফলে তার নেতৃত্বের কারনে একদিকে এলাকার উন্নয়ন ও অপরদিকে দল হয়েছে শক্তিশালী। তার সময়েই দিনাজপুর ৬ আসনের নবাবগঞ্জ, বিরামপুর, হাকিমপুর, ঘোড়াঘাট, উপজেলা বাসিকে আলোকিত করে ইতিহাস রচনা করেছেন, যা ইতি পূর্বে কোনো এমপি এতো পরিমাণ বিদ্যুৎ দিতে পারেননি, রাস্তা ব্রীজ কালভাট রেকর্ড পরিমাণ নির্মাণ করেছেন। অনেক স্কুল কলেজ এর নতুন ভুবন নির্মাণ ও পুরাতন ভুবনের বাকি কাজ গুলো সম্পন্ন করেছেন।

তাছাড়া তিনি ৪ উপজেলায় ৪ টি সরকারি কলেজ করেছেন এবং নবাবগঞ্জ বহুমুখী পাইলট উচ্চ বিদ্যালয়কে সরকারি করন করেছেন।সাংগঠনি দিক তিনি তৃনমূল নেতাকর্মী দের মূল্যয়নের ইতি ইতিাহাস রচনা করেছেন, দিনাজপুর ৬ আসনের ৩ টি পৌরসভার র্নিবাচনে ২টি পৌর মেয়র আওয়ামীলীগ কে উপহার দিয়েছেন। ইউনিয়ন নির্বাচনে ২৩টি ইউনিয়ানের মধ্য ১৬ টি ইউপি চেয়ারমান আওয়ামীলীগের পরিবারকে উপহার দিয়েছেন। এ সব সম্ভব হয়েছে।

নবাবগঞ্জ উপজেলা ছাত্রলীগের যুগ্ন সাধারন সম্পাদক আরিফুর জামান জনি জানান- শিবলী সাদিক এমপির কঠর পরিশ্রম ও আওয়ামীলীগের তৃনমূলের নেতাকর্মী দের সঙ্গে নিয়ে তাদের মতামত গ্রহণ করে কাজ করেছেন বলেই,দেশব্যাপি চলমান মাদক নির্মূল অভিযান সফল করতে এলাকার ও পাড়ায় মহল্লায় জন সচেতনতা মূলক কার্যক্রম এলাকায় সাড়া জাগিছেন। বর্তমানে ৪ উপজেলার আইন শূংখলা পরিস্থিতিও অনেক ভাল। শিবলী সাদিক এমপি’র দক্ষ নেতৃত্বের কারনে সংসদীয় আসনটি আওয়ামীলীগের শক্ত ঘাটিতে পরিণত হয়েছে । আগামী সংসদ নির্বাচনে শিবলী সাদিক এমপির যোগ্য নেতৃত্বের নৌকার বিজয় সুনিশ্চিত হবে ।

 

 

কিউএনবি/আয়শা/৩১শে আগস্ট,২০১৮ ইং/বিকাল ৫:৩৬