১৬ই নভেম্বর, ২০১৮ ইং | ২রা অগ্রহায়ণ, ১৪২৫ বঙ্গাব্দ | রাত ১২:৫৬

দিনাজপুরে একই রাতে হত্যা হয়েছে ৪টি পেঁচা

 

আফজাল হোসেন ফুলবাড়ী দিনাজপুর প্রতিনিধি : সারা বছর যেখানে খোঁজা খুঁজির পরও একটা পেঁচার সন্ধান পাওয়া যায় না। সেখানে একই রাতে হত্যা করা হয়েছে ৪টি হুতুম পেঁচা। নিরহ ও সুন্দর এই পাখির নাম পেঁচা। হুতুম পেঁচা নামেও পরিচিত এটি।
দিনাজপুর সদর উপজেলার ৯নং আস্করপুর ইউনিয়নের সুন্দরা পীরপুকুরে উপরিভাগের চারদিকে বাঁশ দিয়ে লাগানো হয়েছে কারেন্ট জাল। পুকুরের চতুর্দিকে কারেন্ট জালেই আটকে রয়েছে ৪টি পেঁচা ও ১টি বাদুর। পুকুরের পারে দেখা মেলে মকবুল হোসেনের তিনি জানান পাখিগুলি পেঁচা কি না তার জানা নেই।

তিনি এই পুকুরটির দেখাশোনার দায়িত্বে রয়েছেন। মাছ চাষ করছেন শশরা ইউনিয়নের মোঃ ওয়াজেদ আলী। মুঠফোনে মৎস্য চাষী ওয়াজেদ আলী জানান, তিনি ৫ বছরের জন্য গত জুলাই মাসে এই পুকুরটি নিয়েছেন মাছ চাষের জন্য। যেহুতু পুকুরে ছোট মাছ রয়েছে পানকৌর ও অন্যান্য পাখির আক্রমণ ঠেকাতে পুকুরের চারদিকের উপরিভাবে কারেন্ট জাল দিয়েছেন। এই কারেন্ট জালে পেঁচা পাখি মরেছি কি না তিনি তা বলতে পারেন না। এব্যাপারে দিনাজপুর বন বিভাগের রামসাগর জাতীয় উদ্যানের কিউরেটর আব্দুস সালাম তুহিন জানান, ঘটনাটি যদি সত্যি হয়ে থাকে তাহলে এব্যাপারে পুলিশ প্রাণী হত্যার অপরাধে মামলা দিতে পারে।

আমাদের দেশে পেঁচা এখন আর দেখা যায় না। দিন দিন পেঁচর সংখ্যা কমে যাচ্ছে, নাই বললেই চলে। পরিবেশের ভারসাম্য বজায় রাখতে পেঁচার ভূমিকা অতুলনীয়। পেঁচা পাখিদের দলের হলেও এরা অন্যান্য পাখিদের সাথে একত্রে থাকে না। এরা একাকি নির্জনে বাস করে। এদের দিনির আলোতে খুব একটা বেশী দেখা যায় না বেশির ভাগ ক্ষেত্রে উঁচু মগডালে বা ঘন পাতার আড়ালে লুকিয়ে থাকে।

 

 

কিউএনবি/আয়শা/৩১শে আগস্ট,২০১৮ ইং/বিকাল ৪:৫৯