১৪ই নভেম্বর, ২০১৮ ইং | ৩০শে কার্তিক, ১৪২৫ বঙ্গাব্দ | রাত ৯:৫৮

রেজোয়ানের ভাসমান স্কুল

 

ডেস্ক নিউজ: দেশের বন্যাপ্রবণ এলাকা, যেখানে সাধারণত শিশুদের শিক্ষার সুযোগ নেই, সেখানে শিক্ষা-সুবিধা নিশ্চিতকরণে দৃষ্টান্তমূলক ভূমিকা রাখছে বাংলাদেশি স্থপতি মোহাম্মদ রেজোয়ানের অলাভজনক স্বেচ্ছাসেবী সংগঠন ‘সিধুলাই স্বনির্ভর সংস্থা’। আর দেশের ভাসমান শিক্ষা পদ্ধতির উদ্ভাবক রেজোয়ানের ডিজাইনকৃত ভাসমান স্কুল, প্রশিক্ষণ কেন্দ্র ও স্বাস্থ্যসেবা ক্লিনিক ‘ডিজাইন উইথ দ্য ৯০% যুক্তরাষ্ট্রের একটি প্রদর্শনীতে অন্তর্ভুক্তির জন্য এবার মনোনীত হয়েছে। রেজোয়ান ২০০২ সালে ভাসমান স্কুল প্রবর্তন করেন এবং দেশ-বিদেশের অন্যান্য সংস্থা তারই নৌকাস্কুলের অনুরূপে ২০১০ সাল-পরবর্তী সময়ে এ বিষয়ে কাজ শুরু করে। বর্তমানে বিশ্বের ৮টি দেশে রেজোয়ানের অনুরূপ ভাসমান স্কুল কার্যক্রম হচ্ছে, যা লাখ লাখ মানুষের জীবনে পরিবর্তন এনেছে। আসছে ১৩ সেপ্টেম্বর থেকে আগামী বছর ১৯ মে পর্যন্ত যুক্তরাষ্ট্রের সিয়াটলের বিল অ্যান্ড মেলিন্ডা গেটস ফাউন্ডেশনের সদর দফতরের ডিসকভারি সেন্টারে এই প্রদর্শনী অনুষ্ঠিত হবে। এর আয়োজন করেছে কুপার হিউইট, স্মিতসোনিয়ান ডিজাইন মিউজিয়াম এবং বিল অ্যান্ড মেলিন্ডা। প্রদর্শনীতে বিশ্বজুড়ে পিছিয়ে পড়া জনগোষ্ঠীর জন্য সহজলভ্য ও টেকসই আশ্রয়স্থল, খাদ্য, পানীয় জল, স্যানিটেশন, শিক্ষা ও স্বাস্থ্যসেবা নিশ্চিতকরণের ওপর ২৫টি ডিজাইন ও উদ্ভাবন প্রদর্শিত হবে। ‘সিধুলাই স্বনির্ভর সংস্থা’র পক্ষ থেকে জানানো হয়, প্রদর্শনীর আয়োজকরা টেকসই বিকল্প প্রযুক্তি ও বাংলার লোকজ ঐতিহ্যের সমন্বয়ে নৌকাস্কুল উদ্ভাবন এবং বন্যাপ্রবণ এলাকার মানুষের দৈনন্দিন জীবন-যাত্রার মান উন্নয়নের মাধ্যমে সামাজিক ডিজাইন আন্দোলনকে সংজ্ঞায়িত করার জন্য রেজোয়ানের নৌকাস্কুলকে নির্বাচন করেন। এ সম্পর্কে স্থপতি মোহাম্মদ রেজোয়ান বলেন, ‘স্থপতিরা সাধারণত তাদেরই জন্য নকশা করেন, যাদের বিল্ডিং তৈরি করার সামর্থ্য আছে। কিন্তু আমি সব সময় চিন্তা করেছি, কেন একজন স্থপতি গ্রামীণ সমাজে বসবাসরত দরিদ্র মানুষের জন্য চমৎকার কিছু ডিজাইন করতে পারবেন না! এজন্য আমাদের সব প্রকল্পের ডিজাইন সামাজিক সমস্যা সমাধানে কাজ করে। নৌকাস্কুল ডিজাইনের ১৬ বছর পর দ্বিতীয়বার আমাদের কাজ গেটস ফাউন্ডেশনে আবার প্রদর্শিত হবে।

একজন স্থপতি হিসেবে আমি সত্যি সম্মানিত বোধ করছি। আমি আশা করছি আমরা বন্যাপ্রবণ এলাকার মানুষের উন্নয়নে জীবন বদলে দেওয়া আরও ডিজাইন আনতে পারব। আমি আরও আশা করছি, এই স্বীকৃতি তরুণ ডিজাইনার, স্থপতি ও ডিজাইনের সঙ্গে যুক্ত নয় এমন ব্যক্তিকেও বিশ্বজুড়ে গ্রামীণ সমাজের অগ্রগতিতে এরূপ ডিজাইন সমাধান উদ্ভাবনে উৎসাহিত করবে।’ উল্লেখ্য, এই প্রদর্শনীর বাইরেও এসএএম সুইস আর্কিটেকচার মিউজিয়াম ২০১৭-১৮ সালে সুইজারল্যান্ডের ব্যাজলে ‘বেঙ্গল স্ট্রিম’ স্থাপত্য প্রদর্শনীতে রেজোয়ানের নৌকাস্কুলের ডিজাইন প্রদর্শন করে। এ ছাড়া এই ট্রাভেলিং স্থাপত্য প্রদর্শনীটি পর্যায়ক্রমে ২০১৮ থেকে ২০২০ সালব্যাপী ফ্রান্সে বরদো আর্কিটেকচার সেন্টার আর্ক-অন-রেভম, ফ্রাঙ্কফুর্টের জার্মান আর্কিটেকচার মিউজিয়াম এবং লন্ডনের রয়্যাল একাডেমিতে অনুষ্ঠিত হবে।

কিউএনবি/অনিমা/৩১শে আগস্ট, ২০১৮ ইং/সকাল ১০:৪১