২২শে সেপ্টেম্বর, ২০১৮ ইং | ৭ই আশ্বিন, ১৪২৫ বঙ্গাব্দ | সকাল ৯:২৪

নরসিংদীতে দুই দল গ্রাম বাসীর সংঘর্ষে নিহত একজন

মোঃ সালাহউদ্দিন আহম্মেদ,নরসিংদী : তুচ্ছ ঘটনার জের ধরে নরসিংদীর বেলাবোতে দুই দল গ্রাম বাসীর সংঘর্ষে এক জন নিহত হয়েছেন।এ ঘটনায় আহত হয়েছেন আরও কমপক্ষে ২৫ জন।প্রায় ২০টি বাড়িঘরে ভাংচুর ও অগ্নি সংযোগ করা হয়।রবিবার বিকেলে বেলাবো উপজেলার নোয়াপাড়া গ্রামে এ ঘটনা ঘটে।  

নিহত কামাল মিয়া (৩০)  সল্লাবাদ গ্রামের মজনু মিয়ার ছেলে।আহতদের বেলাবো ,ভৈরব ও কটিয়াদির বিভিন্ন হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।পুলিশ ও এলাকাবসী সূত্রে জানা যায়, গত ৪ দিন আগে সিএনজি অটোরিক্সার ড্রাইভার সেলিম তার সিএনজি নিয়ে যাচ্ছিল।

হঠাৎ গাড়ির নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে কালো ডাক্তারের বাড়ি তুলে দেয়।এসময় কালো ডাক্তারের বাড়ির একটি ঘর ভেঙে যায়।এতে ক্ষিপ্ত হয়ে কালো ডাক্তারের বাড়ির লোকজন নয়ন ব্যাপারীর বাড়ির সিএনজি ড্রাইভার সেলিমকে মারপিট করে।

এনিয়ে একই গ্রামের দুই বাড়ির লোকজনদের মধ্যে উত্তেজনা দেখা দেয়।পরবর্তীতে তাদের দুই গ্রুপের মধ্যে সংঘর্ষের আকার ধারণ করলে স্থানীয় ইউপি সদস্য লিটন মিয়া বিষয়টি নিস্পত্তির অশ্বাস দেন।এরই মধ্যে রবিবার বিকালে বিষয়টি সমাধানের কথা থাকলেও নয়ন ব্যাপারীর বাড়ির লোকজন বেলা ১২টার দিকে কালো ডাক্তারের বাড়িতে হামলা ও ভাংচুর চালায়।

পরবর্তীতে কালো ডাক্তারের বাড়ির লোকজন নয়ন ব্যাপারীর বাড়িঘর ভাংচুর করে।পরে উভয়পক্ষ সংঘর্ষে জড়িয়ে পড়ে।এ সময় সংঘর্ষ থামাতে গিয়ে কামাল মিয়া নিহত হন।এখবর ছড়িয়ে পড়লে সংঘর্ষ তীব্র আকার ধারণ করে।সংঘর্ষে চলাকালীন প্রতিপক্ষরা প্রায় ২৫টি বাড়িঘরে ব্যাপক ভাংচুর চালায়।অগ্নি সংযোগ করা হয় বেশ কয়েকটি ঘরবাড়িতে।খবর পেয়ে বেলাবো থানা পুলিশ ঘটনাস্থলে যায়।

নরসিংদী অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (অপরাধ ) মো. শফিউর রহমান বলেন, উভয় পক্ষের সংঘর্ষে একজন নিহত হওয়ার খবর পাওয়া গেছে।এলাকার পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে রাখতে পুলিশ ক্যাম্প বসানো হয়েছে।তাছাড়া স্থানীয় লোকজনদের নিয়ে বৈঠক করা হয়েছে।এবং স্থানীয় লোকজন সংঘাত এড়িয়ে যাবেন বলে পুলিশকে কথা দিয়েছেন।

 

 

 

 

কিউএনবি/সাজু/২৭শে আগস্ট, ২০১৮ ইং/সন্ধ্যা ৭:৩৮