২০শে নভেম্বর, ২০১৮ ইং | ৬ই অগ্রহায়ণ, ১৪২৫ বঙ্গাব্দ | দুপুর ১২:০৪

সালিসে গিয়ে খুন হয় কিশোর সোহান

 

এম নজরুল ইসলাম বগুড়া অফিস : তুচ্ছ ঘটনাকে কেন্দ্র করে বগুড়ার শেরপুরে সোহান (১৬) নামের এক কিশোর খুন হয়েছে। এঘটনায় অভিযুক্ত মোরশেদ (১৫) নামের আরেক কিশোরকে গ্রেফতার করা সহ হত্যাকান্ডে ব্যবহৃত ছুরি উদ্ধার করেছে থানা পুলিশ। শনিবার (২৫) আগস্ট) রাত ৮টার দিকে শেরপুর উপজেলার রনবীরবালা ঘাটপাড় এলাকায় কিশোর সোহানকে ছুরিকাঘাতে খুন করা হয়।স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, ঘটনার দিন কিশোর সোহান ও তার এক বন্ধু রাস্তা দিয়ে হেঁটে যাচ্ছিল। অভিযুক্ত মোরশেদ সহ তার কয়েকজন বন্ধু রাস্তার পাশে বসে ছিল।

অভিযুক্ত মোরশেদ সহ তার বন্ধুরা বিভিন্নভাবে কিশোর সোহানকে কুটুক্তি করে। এসময় উভয় পক্ষের মধ্যে কথাকাটাকাটি ও ধাক্কাধাক্কির ঘটনা ঘটে। বিষয়টি সমাধানের জন্য স্থানীয় আতিক নামের এক যুবক রনবীরবালা ঘাটপাড় এলাকায় সালিস ডাকে। সে মোতাবেক রাত ৮টার দিকে কিশোর সোহান ও তার এক বন্ধু সালিসে উপস্থিত হয়। অভিযুক্ত মোরশেদ সহ হাজির হয় অন্তত ৭/৮ জন। সালিসের মধ্যে অভিযুক্ত মোরশেদের দিকে আঙ্গুল দিয়ে দেখিয়ে কিশোর সোহান বলে, মোরশেদ আমাকে কুটুক্তি করেছে। এই কথা বলতেই মোরশেদ সহ তার বন্ধুরা ছুটে গিয়ে কিশোর সোহানকে ধরে বেধরক মারপিট করতে করতে অন্ধকারে নিয়ে যায়। এরপর কিশোর সোহানকে ছুরিকাঘাত করে মোরশেদ।

সোহানের চিৎকারে আশপাশের লোকজন ছুটে এসে তাকে রক্তাক্ত অবস্থায় উদ্ধার করে বগুড়ার শহীদ জিয়াউর রহমান মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করে। সেখানে চিকিৎসাধিন অবস্থায় রাত ১১ টার দিকে কিশোর সোহানের মৃত্যু হয়। সে উপজেলার খানপুর ইঊনিয়নের গোপালপুর গ্রামের সুজন মিয়ার ছেলে।

এঘটনায় স্থানীয় জনতা অভিযুক্ত কিশোর মোরশেদকে আটক করে পুলিশে সোপর্দ করেছে। তবে মোরশেদের অন্য সহযোগিরা পালিয়ে গেছে। আটক মোরশেদ (১৫) উপজেলার গাড়িদহ ইউনিয়নের ছোটফুলবাড়ি গ্রামের আব্দুস সালামের ছেলে। রোববার (২৬ আগস্ট) দুপুরে শেরপুর থানার ওসি হুমায়ুন কবির ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে জানান, মোরশেদ আটকের পর কিশোর সোহানকে হত্যার দায় স্বীকার করেছে। হত্যায় ব্যবহৃত ছুরি উদ্ধার করা হয়েছে। এঘটনায় থানায় একটি হত্যা মামলা দায়ের করেছে।

 

কিউএনবি/অায়শা/২৬শে আগস্ট, ২০১৮ ইং/সন্ধ্যা ৭:৪৬