১৫ই নভেম্বর, ২০১৮ ইং | ১লা অগ্রহায়ণ, ১৪২৫ বঙ্গাব্দ | রাত ১:৫৯

বরিশালে ছাত্রদলের পদপ্রাপ্ত ও বঞ্চিত গ্রুপের মধ্যে সংঘর্ষ

 

ডেস্ক নিউজ : বরিশালে ছাত্রদলের নতুন কমিটি গঠনকে কেন্দ্র করে পদপ্রাপ্ত ও পদবঞ্চিত দুই গ্রুপের মধ্যে ধাওয়া পাল্টা ধাওয়া এবং ইট পাটকেল নিক্ষেপের ঘটনা ঘটেছে। শুক্রবার বেলা পৌঁনে ১২ টার দিকে সদর রোডের বিএনপি কার্যালয়ের সামনে এই সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে। এ সময় রামদাসহ ছাত্রদলের এককর্মীকে আটক করে পুলিশ।

গত ২০ আগস্ট রাতে বরিশাল জেলা ও মহনগর ছাত্রদলের আংশিক কমিটি ঘোষণা করে কেন্দ্রীয় কমিটি। এতে যারা গুরুত্বপূর্ণ পদ পাননি তারা ক্ষুব্ধ হন। শুক্রবার সকাল ১০টার দিকে তারা বিএনপি কার্যালয়ের সামনে অবস্থান নিয়ে ঘোষিত কমিটি প্রত্যাখান করে নতুন কমিটি গঠনের দাবীতে বিক্ষোভ করেন।

বেলা পৌঁনে ১২ টার দিকে নতুন কমিটির নেতৃবৃন্দ দলীয় কার্যলয়ের সামনে গেলে উত্তেজনা দেখা দেয়। এক পর্যায়ে দুই পক্ষের মধ্যে হাতাহাতি, ধাওয়া-পাল্টা ধাওয়া এবং ইট পাটকেল নিক্ষেপ সহ সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে।  এ সময় পুলিশ পদ বঞ্চিত পক্ষের একজনকে একটি রামদা সহ আটক করে। এর কিছুক্ষন পরই দুই পক্ষ দলীয় কার্যালয় এলাকা ত্যাগ করে।

ছাত্রদলের দুই পক্ষের মধ্যে কিছুটা উত্তেজনার সৃষ্টি হলেও বর্তমানে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আছে বলে জানিয়েছেন কোতয়ালী মডেল থানার ওসি মো. নুরুল ইসলাম। ধারালো অস্ত্র সহ আটক যুবকের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়ার কথা বলেন তিনি।

উল্লেখ্য, ২০ আগস্ট মাহফুজুল আলম মিঠুকে সভাপতি ও কামরুল ইসলামকে সাধারন সম্পাদক করে বরিশাল জেলা কমিটি এবং রেজাউল করিম রনিকে সভাপতি ও হুমায়ন কবিরকে সাধারণ সম্পাদক করে মহানগর কমিটি ঘোষণা করে কেন্দ্রীয় ছাত্রদল। এই কমিটিতে যোগ্যদের মূল্যায়ন করা হয়নি জানিয়ে করে নতুন কমিটি বাতিল করে ত্যাগী ও পরীক্ষিতদের নিয়ে পুনরায় কমিটি গঠনের দাবীতে জেলা ছাত্রদলের সভাপতি প্রার্থী  সাইফুল ইসলাম সুজন, সম্পাদক প্রার্থী সোহেল রাড়ি, মহানগর ছাত্রদলের সভাপতি প্রার্থী আরিফুর রহমান মুন্না ও সেক্রেটারী প্রার্থী আরিফুল ইসলাম জনি সহ পদ বঞ্চিত অন্যান্যরা ক্ষুব্ধ হয়ে তাদের সমর্থকদের নিয়ে আন্দোলন করছেন।

 

 

কিউএনবি/আয়শা/২৪শে আগস্ট, ২০১৮ ইং/সন্ধ্যা ৬:১০