১৭ই নভেম্বর, ২০১৮ ইং | ৩রা অগ্রহায়ণ, ১৪২৫ বঙ্গাব্দ | সকাল ১০:৩৫

‘২১ আগস্ট গ্রেনেড হামলার রায়ে নতুন করে সংকটে পড়বে বিএনপি’

 

ডেস্কনিউজঃ ২১ আগস্ট গ্রেনেড হামলার এই হত্যাকাণ্ডের সঙ্গে বিএনপি সরাসরি জড়িত, দাবি করে আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের বলেছেন, হত্যাকারী যেই হোক, যত প্রভাবশালী হোক ক্ষমা পাবে না। বিচারের রায় আমরা প্রভাবিত করতে চাই না। নিরপেক্ষভাবে বিচার হবে। বিচারে যারাই দোষী সাব্যস্ত হবে, শাস্তি তাদের পেতেই হবে।

শুক্রবার (২৪ আগস্ট) সকালে বনানীতে আইভি রহমানের কবরে শ্রদ্ধা নিবেদন শেষে সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে তিনি এসব কথা বলেন।

কাদের বলেন, ‘বিএনপি সরকারের প্রত্যক্ষ মদদে, হাওয়া ভবনের সরাসরি পরিকল্পনা ও নির্দেশনায় সেদিন কিলাররা এই হত্যাকাণ্ড ঘটিয়েছিল।’

রায় হচ্ছে জেনে বিএনপির গাত্রদাহ শুরু হয়েছে মন্তব্য করে কাদের বলেন, এখন এই মামলার রায় হচ্ছে, এ জন্য সবাই খুশি। বিএনপি কেবল অখুশি। সেপ্টেম্বরে রায় হওয়ার একটা সম্ভাবনা আছে। এ কথা শুনে বিএনপি চিন্তিত। তারা জড়িত বলে তাদের এই গাত্রদাহ। কারণ রায় বের হলে তারা নতুন করে সংকটে পড়বে। তারা এমনিতেই সংকটে আছে।’

বিএনপি নির্বাচন প্রতিহত করার কথা বলেছে এ বিষয়ে প্রতিক্রিয়া জানতে চাইলে কাদের বলেন, ‘তারা কি প্রতিহত করবে। তারা নির্বাচন প্রতিহত করতে চাইলে জনগণ এবার তাদের পাল্টা প্রতিহত করবে।’

এর আগে গ্রেনেড হামলার বিষয়ে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার দেওয়া বক্তব্যে বিচার প্রভাবিত হবে বলে দাবি করেছিলেন বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর।

এর জবাবে কাদের বলেন, আমি তো বুঝতে পারলাম না, কীভাবে প্রভাব পড়বে? আমিসহ ৫০০ জন তো এখনও পঙ্গু। কেউ অর্ধ পঙ্গু, কেউ পুরো পঙ্গু। এই হত্যাকাণ্ডের কি বিচার হবে না? বিএনপি তো আলামত পুড়িয়ে ফেলেছিল। এফবিআইকে তদন্ত করতে দেয়নি। স্কটল্যান্ড ইয়ার্ডকে আসতে দেয়নি। জজমিয়া নাটক সাজিয়েছিল। এই নির্মম হত্যাকাণ্ডের, এই নৃশংস গ্রেনেড হামলা যা রক্তস্রোত বইয়ে দিয়েছিল বঙ্গবন্ধু অ্যাভিনিউয়ে- এর বিচার তো তারা (তৎকালীন সরকার) করেনি। প্রহসনমূলক একটা তদন্ত কমিটি করেছিল। সেই তদন্ত কমিটির রিপোর্ট ছিল হাস্যকর।’

তিনি বলেন, ‘তখন তো ছিল খালেদা জিয়ার সরকার। তারাই হত্যাকাণ্ড ঘটিয়েছে, কারণ তারা এই হত্যাকাণ্ডের সঙ্গে সরাসরি জড়িত। হত্যাকারী যেই হোক, যত প্রভাবশালী হোক ক্ষমা পাবে না। বিচারের রায় আমরা প্রভাবিত করতে চাই না। নিরপেক্ষভাবে বিচার হবে। বিচারে যারাই দোষী সাব্যস্ত হবে, শাস্তি তাদের পেতেই হবে।’

দেরিতে হলেও মামলার রায় হচ্ছে জেনে সন্তোষ প্রকাশ করে আইভি রহমানের মেয়ে তানিয়া রহমান বলেন, ‘যারা সত্যিকারের জড়িত সে যেই হোক- বিএনপি হোক, জামায়াতের হোক, তাদের যেন শাস্তি হয়।’

এ সময় আওয়ামী লীগের সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য সাহারা খাতুন, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ড. দীপু মনি, জাহাঙ্গীর কবির নানক, সাংগঠনিক সম্পাদক আবু সাঈদ আল মাহমুদ স্বপন, এ কে এম এনামুল হক শামীম, কৃষি ও সমবায় বিষয়ক সম্পাদক ফরিদুন্নাহার লাইলী, কেন্দ্রীয় নেতা মারুফা আক্তার পপি এবং ঢাকা মহানগর ও সহযোগী সংগঠনের নেতারা উপস্থিত ছিলেন।

 

কিউএনবি/বিপুল/২৪শে আগস্ট, ২০১৮ ইং/ দুপুর ১২:৪৪