ব্রেকিং নিউজ
২১শে সেপ্টেম্বর, ২০১৮ ইং | ৬ই আশ্বিন, ১৪২৫ বঙ্গাব্দ | সকাল ১০:০৭

দুর্গাপুরে নিজেদের বেতনের টাকায় পুনর্বাসিত হলো এক ভিক্ষুক

 

তোবারক হোসেন খোকন, দুর্গাপুর(নেত্রকোনা) : ‘‘মানুষ মানুষের জন্যে, জীবন জীবনের জন্যে, একটু সহানুভুতি কি মানুষ পেতে পারে না ও বন্ধু’’ এমনি এক সহানুভুতির ঘটনা ঘটেছে নেত্রকোনার দুর্গাপুরের চন্ডিগড় ইউনিয়নের মউ গ্রামের ফুয়াদ আলী (৪৫) নামক এক ভিক্ষুক কে নিজেদের বেতনের টাকা থেকে সহায়তা করে পুনর্বাসন করলেন দুর্গাপুর পল্লী বিদ্যুৎ জোনাল অফিসের মিটার টেষ্টার মো. শাজাহান।

এ উপলক্ষে সোমবার দুপুরে পল্লীবিদ্যুৎ দুর্গাপুর জোনাল অফিস মিলনায়তনে সকলের উপস্থিতিতে ভিক্ষুক ফুয়াদ আলীকে চা ও পান দোকানের বিভিন্ন সামগ্রী হস্তান্তর করা হয়। মিটার টেষ্টার মোঃ শাহাজান মিয়ার ব্যক্তিগত উদ্দ্যেগে ফুয়াদ আলীকে পুনর্বাসনের লক্ষ্যে প্রায় ২৫হাজার টাকার সাহায্য উঠায়। টং ঘর ও চায়ের দোকানের সামগ্রী কিনতে প্রায় ৫০ পঞ্চাশ হাজার টাকার প্রয়োজন হলে বাকী সকল টাকাই শাজাহান মিয়ার বেতনের টাকা থেকে প্রদান করে এ সামগ্রী হস্তান্তর করা হয়। এ সময় অন্যান্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন, পল্লী বিদ্যুৎ ডিজিএম মোল্লা মো. আবুল কালাম আজাদ, এজিম মো. ওয়াদুদ হোসেন, প্রেসক্লাব প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি শাহাদাৎ হোসেন কাজল, প্রেসক্লাব সাধারণ সম্পাদক তোবারক হোসেন খোকন, পল্লী বিদ্যুৎ এর ইসি মো. মোজাফ্ফর হোসেন, প্রকৌশলী তাজুল ইসলাম, মিটার টেষ্টার মো. শাজাহান প্রমুখ।

ভিক্ষুক ফুয়াদ কান্না জড়িত কন্ঠে সাংবাদিকদের বলেন, ছোট বেলায় কালা জ্বরে তাঁর একটা পা নষ্ট হয়ে গেলে আমি পঙ্গু হয়ে যাই, আমার দুই ছেলে দুর্গাপুর মারকাজ মাদরাসায় হাফেজী বিভাগে পড়াশুনা করছে। তাঁর স্ত্রীর মানসিক রোগী। পঙ্গু শরীর নিয়ে দ্বারে দ¦ারে ভিক্ষা করা ছাড়া আমার কোন উপায় নাই। সকল বিষয়টি পল্লীবিদ্যুৎ অফিসের শাজাহান মিয়ার কাছে খুলে বলি। তিনি জায়গার জন্যে ইউএনও মো. মামুনুর রশীদ এর সাথে কথা বলে মারকাজ মসজিদের পাশে পুকুর পাড়ে একটি ছোট টং ঘর বসিয়ে চা ও পানের দোকান করে দেয়ার কথা জানালে আমি রাজী হই। পরবর্তিতে সকল ব্যবস্থা করতে মো. শাহাজান মিয়া এগিয়ে আসেন।

এ নিয়ে মো. শাহাজান বলেন, তিনি আমার বাবার মতো, আমি মনে করি ভিক্ষা করা ভালো নয়, আমার একটু সহায়তায় যদি একটি পরিবার ভিক্ষাবৃত্তি থেকে মুক্ত হয় ক্ষতি কি? আমি দেশ বাসীর কাছে অনুরোধ করবো, আসুন আমাদের ভিতরের মানুষটিকে জাগিয়ে অসহায় মানুষদের পাশে দাঁড়াই, আসন্ন কুরবানী ঈদে নিজেরা কুরবানী না দিয়ে, ঐ টাকায় অসহায়দের সহায়তা করি, এর চেয়ে কুরবানী আর কি হতে পারে?

 

 

 

 

কিউএনবি/সাজু/২০শে আগস্ট, ২০১৮ ইং/বিকাল ৪:৫৬