ব্রেকিং নিউজ
১৯শে সেপ্টেম্বর, ২০১৮ ইং | ৪ঠা আশ্বিন, ১৪২৫ বঙ্গাব্দ | সন্ধ্যা ৭:১৬

শহীদুলসহ গ্রেপ্তারকৃতদের মুক্তির দাবি জানালেন ১১ নোবেল জয়ী

 

ডেস্কনিউজঃ আন্তর্জাতিক খ্যাতি সম্পন্ন আলোকচিত্রী শহীদুল আলমের মুক্তির দাবি জানিয়ে বিবৃতি দিয়েছেন ১১ নোবেল বিজয়ী। তারা ড. শহীদুল আলমকে অন্যায়ভাবে গ্রেপ্তার করা হয়েছে দাবি তুলে নিঃশর্ত মুক্তি দেয়ার আহ্বান জানায় বাংলাদেশ সরকারের প্রতি। একই সাথে নিরাপদ সড়কের দাবিতে গড়ে ওঠা আন্দোলনে বিক্ষোভ করায় যাদের গ্রেপ্তার করা হয়েছে অবিলম্বে তাদেরও নিঃশর্ত মুক্তির দাবি তোলেন বিবৃতিদাতারা। ওই বিবৃতিপত্রে নোবেল বিজয়ীরা ছাড়াও আরো ১৭ জন বিশিষ্ট আন্তর্জাতিক ব্যক্তিত্বরা স্বাক্ষর করেন। (সূত্র: বিবিসি)

মুক্তির দাবি জানিয়ে বিবৃতি প্রদানকারী ১১ জন নোবেল বিজয়ীর ভেতর ১০জনই শান্তিতে নোবেল পেয়েছিলেন। বিবৃতিদাতাদের মধ্যে অন্যতম হলেন- নোবেল বিজয়ী ডেসমন্ড টুটু এবং তাওয়াক্কুল কারমান, নরওয়ের সাবেক প্রধানমন্ত্রী গ্রো হারলেম ব্রান্টল্যান্ড, অভিনেত্রী ও অ্যাকটিভিস্ট শাবানা আজমি, শ্যারন স্টোন, চলচ্চিত্র পরিচালক রিচার্ড কার্টিস।

বিবৃতিদাতারা বলেন, ড. শহীদুল আলমকে বিতর্কিত আইসিটি অ্যাক্টের মাধ্যমে গ্রেপ্তার করে পুলিশি রিমান্ডে নেয়া হয়েছে। আমরা যৌথভাবে এর প্রতিবাদ জানাচ্ছি। আমরা বাংলাদেশ সরকারের প্রতি আহ্বান জানাই তারা যেন বেআইনি গ্রেপ্তারের অভিযোগ তদন্ত করে দেখে এবং ড. শহীদুল আলমকে অবিলম্বে এবং নি:শর্তে মুক্তি দেয়।

সম্প্রতি নিরাপদ সড়কের দাবিতে গড়ে ওঠা আন্দোলনের খবর বিভিন্ন আন্তর্জাতিক গণমাধ্যমে গুরুত্বের সাথে স্থান পায়। এইসব খবরের বরাত দিয়ে আন্তর্জাতিক খ্যাতি সম্পন্ন এই বিশিষ্টজনরা তাদের বিবৃতিতে উল্লেখ করেন, নিরাপদ সড়কের দাবিতে স্কুল শিক্ষার্থীরা যে আন্দোলন গড়ে তুলেন সেই দাবির সমর্থনে কয়েকদিন পরে বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরাও পথে নামেন। তাদেরকেও বিভিন্ন মামলায় গ্রেপ্তার করা হয়। পুলিশের উপস্থিতিতেই সেসব তরুণ বিক্ষোভকারীদের উপর ক্ষমতাসীন দলের ছাত্র সংগঠন হামলা চালিয়েছে। এই বিক্ষোভের খবর সংগ্রহে যাওয়া সংবাদ কর্মীদের উপরও হামলা চালানো হয়। যা অত্যন্ত নিন্দনীয়।

বিবৃতিদাতারা আইসিটি আইনের কঠোর সমালোচনা করেন এবং এই আইনকে বিতর্কিত আইন বলে মন্তব্য করেন। আন্দোলনের ছবি তোলায় এবং আন্তর্জাতিক গণমাধ্যমে স্বাধীনভাবে নিজস্ব মত প্রকাশ করায় তাকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে উল্লেখ করেন।

ছাত্রদের ধরে রিমান্ডে নিয়ে নির্যাতন, ভয়ভীতি প্রদর্শন করা হচ্ছে বলেও তারা অভিযোগ তোলেন।

বিবৃতিদাতারা বাংলাদেশের সরকারের প্রতি গ্রেপ্তারকৃতদের মুক্তি ও সকল নাগরিকের মানবাধিকার নিশ্চিত করার আহ্বান জানান।

 

কিউএনবি/বিপুল/১৯ আগস্ট২০১৮ ইং/সন্ধ্যা ৭:৫৭