১৮ই নভেম্বর, ২০১৮ ইং | ৪ঠা অগ্রহায়ণ, ১৪২৫ বঙ্গাব্দ | সকাল ৯:৪৮

হাসপাতালে স্কুলছাত্রীর নগ্ন ছবি ধারণ, গ্রেফতার ২

 

ডেস্ক নিউজ : নড়াইল সদর হাসপাতালের টয়লেটে আটকিয়ে অষ্টম শ্রেণির স্কুলছাত্রীর নগ্ন ছবি ধারণের অভিযোগ পাওয়া গেছে। এ ঘটনায় সাতজনের নামে নড়াইল সদর থানায় মামলা হয়েছে।শনিবার (১৮ আগস্ট) দুপুরে নড়াইল সদর থানায় মামলাটি দায়ের করেন ওই স্কুলছাত্রীর বাবা জাহাঙ্গীর বিশ্বাস। পুলিশ এ মামলার দুই আসামীকে গ্রেফতার করেছে।

মামলায় আসামিরা হলেঅ সদর হাসপাতাল এলাকার বেসরকারি অ্যাম্বুলেন্স চালক শহরের ভওয়াখালীর সেকেন্দার আলী আকাশ (২২), হাসপাতালের সুইপার হরেনের ছেলে বাসু (৩০), সদরের রামচন্দ্রপুরের ইয়ামিন সিকদার (২১), হোসেনপুরের আজিজুর রহমান (২২), ভওয়াখালীর সাব্বির হোসেন (২৫), হুসাইন (১৯) ও ভওয়াখালীর দেবদারতলার হোটেল কর্মচারি ইনামুল (১৯)।

মামলার বিবরণে জানাগেছে, অসুস্থ এক আত্মীয়কে দেখতে এসে শুক্রবার হাসপাতালে অবস্থান করছিল অষ্টম শ্রেণির স্কুলছাত্রী। ওইদিন বিকেলে হাসপাতালের দ্বিতীয় তলার উত্তর পাশের টয়লেটে যায় ভূক্তভোগী মেয়েটি। এ সময় ইয়ামিন সিকদার, বাসু ও আকাশ টয়লেটের সামনে ঘোরাফেরা করছিল। টয়লেট থেকে বের হওয়ার জন্য মেয়েটি দরজা খোলার সঙ্গে সঙ্গে অভিযুক্ত তিনজন তাকে বাঁধা দেয়। মেয়েটিকে ধাক্কা দিয়ে টয়লেটে ভেতরে আটকে দরজা বন্ধ করে দেয়। ভয়ভীতি দিয়ে মোবাইলে নগ্ন ছবি তুলে মেয়েটির কাছে টাকা দাবি করে। টাকা না দিলে নগ্ন ছবি ইন্টারনেটে ছড়িয়ে দেবার হুমকি দেয় তারা। এ কাজে অন্য আসামিরা সহযোগিতা করে। এক পর্যায়ে টয়লেটের কাছে লোকজন এগিয়ে আসলে আসামিরা মেয়েটিকে নগ্ন অবস্থায় ফেলে পালিয়ে যায়।

মামলার তদন্কারী কর্মকর্তা নড়াইল সদর থানার এস আই শফিউদ্দিন জানান, এ ঘটনায় মেয়েটির বাবা জাহাঙ্গীর বিশ্বাস বাদী হয়ে সাতজনের নামে মামলা করেছে। এ মামলার আসামী ইয়ামিন ও আজিজুরকে গ্রেফতার করা হয়েছে। বাকী আসামীদেরকে গ্রেফতারের জোর চেস্টা চলছে।

 

 

 

 

কিউএনবি/সাজু/১৮ই আগস্ট, ২০১৮ ইং/রাত ৮:৪৫