২২শে সেপ্টেম্বর, ২০১৮ ইং | ৭ই আশ্বিন, ১৪২৫ বঙ্গাব্দ | রাত ১:৪২

মনিরামপুরের পল্লীতে সরকারী শিক্ষকের হামলায় প্রধান শিক্ষক জখম

 

তরিকুল ইসলাম,ঝিকরগাছা (যশোর) সংবাদদাতা : যশোরের মনিরামপুর উপজেলার পল্লীতে এক সহকারী শিক্ষকের হামলায় একই বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মারাত্বক ভাবে জখম হয়েছে।মারাত্বক আহত অবস্থায় মহাতাবনগর প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক উত্তম কুমার দাসকে ঝিকরগাছা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়েছে।

জানাগেছে, মহাতাবনগর সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষক মুড়াগাছা গ্রামের মোক্তার আলীর ছেলে নুরনবীর বিরুদ্ধে বিভিন্ন অনিয়মের অভিযোগে উপজেলা শিক্ষা অফিসার বরাবর গ্রামের ২৮ জন স্বাক্ষরিত একটি অভিযোগ দাখিল করে।

ওই অভিযোগের প্রেক্ষিতে আগামী ১৯ আগষ্ট উপজেলা সহকারি শিক্ষা অফিসার মাহিদুল ইসরাম তদন্ত করতে সরেজমিনে ওই স্কুলে আসবেন মর্মে প্রধান শিক্ষক উত্তম কুমার দাস বরাবর গত ১৪ আগষ্ট চিঠি দেন।যার অনুলিপি কপি অভিযুক্ত নুরনবীকে দেয়ার নির্দ্দেশ দেয়া হয়।সে মোতাবেক প্রধান শিক্ষক উক্ত চিঠির অনুলিপি সহকারী শিক্ষক নুরনবীতে প্রদান করেন। চিঠি পেয়ে অভিযুক্ত শিক্ষক নুরনবী ক্ষিপ্ত হয়ে প্রধান শিক্ষককে দোষারোপ করে তাকে দেখে নেয়ার হুমকি দেয়।

এরপর বুধবার গবীর রাতে সহকারী শিক্ষক নুরনবীর নেতৃত্বে একই ওয়ার্ডের ইউপি সদস্য মানোয়ার, মান্দার দফাদারের ছেলে সহিদ, সোহেল এবং মৃত-হাবিবুরের ছেলে সাগরসহ ৭/৮ জন প্রধান শিক্ষক উত্তম কুমার দাসের বাড়িতে গিয়ে সন্ত্রাসী হামলা করে এলপোতাড়ী মারপিট করে।এতে তিনি মারাত্বক ভাবে জখম হয়।

সন্ত্রাসীরা চলে গেলে স্থানীয়রা রাতেই তাকে ঝিকরগাছা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করে।এ ব্যাপারে জানতে চাইলে মনিরামপুর উপজেলা সহকারী শিক্ষা অফিসার মাহিদুল ইসলাম ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে নুরনবীর বিরেুদ্ধে শাস্তিমুলক ব্যবস্থা নেয়া হবে বলে জানিয়েছেন।এ ব্যাপারে অভিযুক্ত সহকারী শিক্ষক নুরনবীর কাছে জানতে চাইলে তিনি ঘটনা অস্বীকার করে ওই রাতে প্রধান শিক্ষকের বাড়িতে যাননি এবং তিনি মারপিট করেননি বলে জানিয়েছেন।

 

 

 

 

 

কিউএনবি/সাজু/১৬ই আগস্ট, ২০১৮ ইং/রাত ০৩