১০ই ডিসেম্বর, ২০১৮ ইং | ২৬শে অগ্রহায়ণ, ১৪২৫ বঙ্গাব্দ | রাত ৯:৫৪

গলাচিপায় আওয়ামী পরিবারের শোক মিছিলে ছাত্রলীগের হামলা

 

ডেস্কনিউজঃ পটুয়াখালীর গলাচিপা উপজেলায় আওয়ামী পরিবারের ব্যানারে বের করা শোক মিছিলে হামলা করেছেন ছাত্রলীগের নেতাকর্মীরা। এ সময় দুইপক্ষের মধ্যে হাতাহাতি ও ধাওয়া-পাল্টাধাওয়ার ঘটনা ঘটে। আজ বুধবার দুপুরে এ ঘটনায় কমপক্ষে ২০ জন নেতাকর্মী আহত হয়েছে। এ সময় ১৫টি মোটরসাইকেল ভাঙচুর করা হয়।

সূত্র জানায়, দুপুর ১২টার দিকে স্থানীয় আওয়ামী লীগের সাংসদ আ খ ম জাহাঙ্গীর হোসাইনের নেতৃত্বে একটি শোক মিছিল বের হয়ে গলাচিপা পৌর এলাকা প্রদক্ষিণ করে পৌর মঞ্চের কাছে যায়। এ সময় জৈনপুরী খানকাহ এলাকা থেকে উপজেলা আওয়ামী পরিবারের ব্যানারে আরেকটি শোক মিছিল বের হয়। সেটি পৌর মঞ্চের কাছে পৌঁছালে সাংসদ সমর্থক গলচিপা উপজেলা ছাত্রলীগের নেতাকর্মীরা বাধা দেন। একপর্যায়ে দুইপক্ষের মধ্যে হাতাহাতি ও ধাওয়া-পাল্টাধাওয়ার ঘটনা ঘটে। অল্প কয়েকজন পুলিশ সদস্য তাঁদের বাধা দিয়েও হাতাহাতি বন্ধ করতে পারেননি। পরে সাংসদ সমর্থকরা সংঘটিত হয়ে আওয়ামী পরিবারের মিছিলের লোকজনকে খুঁজে খুঁজে বের করে পিটুনি দেন। এই ঘটনায় উভয়পক্ষের অন্তত ২০ জন আহত হয়।

হামলায় আহত মুক্তিযোদ্ধা আবুল কালাম মো. ঈসা, গলাচিপা উপজেলা আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক শাহিন শাহ, যুবলীগের সদস্য নজরুল ইসলাম গলাচিপা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে প্রাথমিক চিকিৎসা নিয়েছেন বলে সূত্র জানায়।

পটুয়াখালী জেলা আওয়ামী লীগের সহসভাপতি কাশি নাথ দত্ত ও গলাচিপা উপজেলা পরিষদের সাবেক চেয়ারম্যান হারুন অর রশিদ জানান, হামলার ঘটনায় এমপির বিরুদ্ধে থানায় অভিযোগ দায়ের করা হবে এবং সংবাদ সম্মেলন করে সবাইকে জানানো হবে।

হামলার ব্যাপারে গলাচিপা উপজেলা ছাত্রলীগের সভাপতি কামরুল ইসলাম জানান, নিজেদের মধ্যে অনাকাঙ্ক্ষিত ঘটনা ঘটেছে।

অবশ্য সাংসদ আ খ ম জাহাঙ্গীর হোসাইন জানিয়েছেন, কোথাও কোনো শোক মিছিলে হামলার ঘটনা ঘটেছে কিনা তাঁর জানা নেই।

গলাচিপা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) জাহিদ হোসন জানান, পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনতে পুলিশ লাঠিপেটা করেছে এবং শহরে অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে।

 

কিউএনবি/বিপুল /১৫ই আগস্ট, ২০১৮ ইং/রাত ১০:১৪