২২শে সেপ্টেম্বর, ২০১৮ ইং | ৭ই আশ্বিন, ১৪২৫ বঙ্গাব্দ | ভোর ৫:৩৮

১ লাখ ২১ হাজার ৮৬৮ জন হজযাত্রী সৌদি আরব পৌঁছেছেন

 

ডেস্ক নিউজ : ধর্মমন্ত্রী অধ্যক্ষ মতিউর রহমান বলেছেন, গত ১৪ জুলাই থেকে এ পর্যন্ত ১ লাখ ২১ হাজার ৮৬৮ জন হজযাত্রী সৌদি আরব পৌঁছেছেন। তারা মক্কা ও মদিনা শরিফে এবাদত বন্দেগি করছেন।তিনি বলেন, চলতি বছরের ২০ আগস্ট সৌদি আরবের মক্কায় পবিত্র হজ অনুষ্ঠিত হবে । ২০১৮ সালের হজ চুক্তি অনুসারে বাংলাদেশের হজযাত্রীর কোটার সংখ্যা ১ লাখ ২৬ হাজার ৭৯৮ জন। সরকারি ব্যবস্থাপনায় হজযাত্রীর কোটার সংখ্যা ৬ হাজার ৭৯৮ জন। বেসরকারি ব্যবস্থাপনায় কোটার সংখ্যা ছিল ১ লাখ ২০ হাজার।

তিনি আজ রাজধানীর আশকোনা হজ অফিসের সম্মেলন কক্ষে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে এসব কথা বলেন।এসময় ধর্ম মন্ত্রনালয়ের সচিব মো. আনিছুর রহমান, যুগ্ন সচিব ড. মোয়াজ্জেম হোসেন, আশকোনা হজ অফিসের পরিচালক সাইফুল ইসলাম, হাব মহাসচিব শাহাদাৎ হোসেন তসলিম এসময় উপস্থিত ছিলেন।

ধর্মমন্ত্রী বলেন, সৌদি দূতাবাস হতে সরকারি ও বেসরকারি ব্যবস্থাপনায় ভিসা ইস্যু করা হয়েছে ১ লাখ ২৬ হাজার ১৮৩ জনের। তার মধ্যে সরকারী ব্যবস্থাপনায় ৬ হাজার ৭৮৪ জন এবং বেসরকারি ১ লাখ ১৯ হাজার ৩৯৯ জন। শুধু মাত্র ভিসার জন্য আবেদন করেনি ৬০৬ জন।তিনি বলেন, গুরুতর অসুস্থতা, মৃত্যু ও এজেন্সি সমূহের অনাগ্রহের কারণে এসকল হজযাত্রী ভিসার জন্য আবেদন করেননি। এক্ষেত্রে সরকারের কিছু করার ছিল না।

তিনি আরও বলেন, এবছর সরকার ও ধর্ম মন্ত্রণালয়ের পক্ষ থেকে হজ এজেন্সিগুলোর সাথে সার্বক্ষনিক যোগাযোগ রক্ষার মাধ্যমে সকল প্রকার বাধা অতিক্রম করার চেষ্টা করেছি। হজযাত্রীরা যেন নির্বিঘ্নে হজে যেতে পারেন সেজন্য এজেন্সীগুলোকে তদারকির মধ্যে রাখা হয়েছে। যারা অপকর্মে জড়িত তাদের বিরুদ্ধে প্রয়োজনীয় আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে বলে আশ্বাস প্রদান করেন ধর্মমন্ত্রী।

মন্ত্রী বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা গত ১১ জুলাই রাজধানীর আশকোনা হজ অফিসে হজ কার্যক্রমের আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন করেন। এরপর ১৪ জুলাই থেকে হজ ফ্লাইট শুরু হয়। আগামী ২৭ আগস্ট থেকে হজের ফিরতি ফ্লাইট শুরু হবে। হজের ফিরতি ফ্লাইট শেষ হবে চলতি বছরের ২৫ সেপ্টেম্বর।

 

 

কিউএনবি/আয়িশা/১৫ই আগস্ট, ২০১৮ ইং/সন্ধ্যা ৬:৫৯