১৩ই নভেম্বর, ২০১৮ ইং | ২৯শে কার্তিক, ১৪২৫ বঙ্গাব্দ | সকাল ১০:৪৭

ভূরুঙ্গামারীতে মোটর সাইকেল চালকের মৃত্যু ঃ পুলিশ-জনতা ধাওয়া-পাল্টা ধাওয়া, পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রনে গুলি

 

মাঈদুল ইসলাম মুকুল,ভূরুঙ্গামারী (কুড়িগ্রাম) প্রতিনিধি : কুড়িগ্রামের ভূরুঙ্গামারীতে ট্রাফিক পুলিশের লাথিতে ট্রাকের সাথে ধাক্কা খেয়ে এক মোটর সাইকেল চালকের মর্মান্তিক মৃত্যু হয়েছে। মোটর সাইকেল চালকের নাম খাইরুজ্জামান খোকন (৩০)। সে শিলখূড়ী ইউনিয়নের ধলডাঙ্গা বাজার সংলগ্ন উত্তর ছাট গোপাল গ্রামের জামাল উদ্দিনের পুত্র।

বৃহস্পতিবার দুপুরে উপজেলার সোনাহাট কলেজ মোড়ে এই ঘটনা ঘটে। এসময় বিক্ষুব্ধ জনতা ট্রাফিক পুলিশের ব্যবহৃত মোটর সাইকেল পুড়িয়ে দেয় এবং ট্রাফিক পুলিশকে সোনাহাট ইউনিয়ন পরিষদ কার্যালয়ে অবরুদ্ধ করে রাখে। খবর পেয়ে ভূরুঙ্গামারী থানা পুলিশের একটি দল ঘটনা স্থলে পৌছলে বিক্ষুব্ধ জনতা পুলিশ ভ্যান ভাংচুর করে ও তাতে আগুন ধরিয়ে দেয়। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রনে আনতে অতিরিক্ত পলিশ মোতায়েন করা হলে বিক্ষুদ্ধ জনতার সাথে পুলিশের ধাওয়া-পাল্টা ধাওয়ার ঘটনা ঘটে। পুলিশ বিক্ষুব্ধ জনতাকে ছত্রভঙ্গ করতে কাদানে গ্যাস ও ফাকা গুলি বর্ষণ করে।

প্রত্যক্ষদর্শী সূত্রে জানা যায় খোকন এক সঙ্গী সহ মোটর সাইকেল যোগে সোনাহাট কলেজ মোড় অতিক্রম কালে মোটর সাইকেলে থাকা ট্রাফিক পুলিশ খোকনের মোটর সাইকেলে লাথি মারে। এতে সে সামনের চলন্ত ট্রাকের সাথে ধাক্কা খেয়ে মারাত্মক ভাবে আহত হয়। তাৎক্ষনিক ভাবে তাকে ভূরুঙ্গামারী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে প্রেরণ করা হয়। সংকটাপন্ন অবস্থায় উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের চিকিৎসকরা উন্নত চিকিৎসার জন্য তাকে রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে প্রেরণ করে। পথিমধ্যে সে মারা যায়। এদিকে খোকনের মরদেহ তার বাড়িতে পৌছলে এলাকায় শোকের ছায়া নেমে আসে।

 

 

 

কিউএনবি/সাজু/৯ই আগস্ট, ২০১৮ ইং/সন্ধ্যা ৬:০৮