২২শে সেপ্টেম্বর, ২০১৮ ইং | ৭ই আশ্বিন, ১৪২৫ বঙ্গাব্দ | সকাল ৯:২৫

বীরগঞ্জে একজনকে কুপিয়ে হত্যা উত্তেজিত জনতা হত্যাকারীকে পুড়িয়ে হত্যা

 

মো: আফজাল হোসেন ফুলবাড়ী দিনাজপুর প্রতিনিধি : বীরগঞ্জে পৌর এলাকার ৯নং ওয়ার্ডের জেলখানা মহল্লার তারা মিয়ার পুত্র পাগল রবিউল ইসলাম ঐ এলাকার একজনকে ভোরে ঘুমন্ত অবস্থায় খুন করে ও দুই জনকে গুরুতর আহত করেছেন। গতকাল ৯ আগষ্ট বৃহস্পতিবার ভোরে রাস্তার কাজের মালামাল রক্ষার জন্য নৈশ্য প্রহরী ঐ এলাকার মৃত কাশেম আলীর পুত্র সুরুজ মিয়া (৪৮)কে কুপিয়ে হত্যা করে।

তারপর পাগল রবিউল বীরগঞ্জ হাটখোলা এলাকায় এসে মুরগীর আড়তের নৈশ্য প্রহরী মৃত মুধু মিয়ার পুত্র আব্দুর শহীদ (৪৫) ও শহিদের পুত্র শামীম (৩) কে ধারালো অস্ত্র দিয়ে কুপিয়ে জখম করে পালিয়ে যায়। আহত শহীদকে রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ও শামীমকে বীরগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসার জন্য প্রেরণ করা হয়েছে। হত্যাকান্ড শেষে পালিয়ে যাওয়ার সময় উত্তোজিত জনতা ১৩মাইল নামক স্থান থেকে আটক তার বাড়ী এলাকায় নিয়ে এসে উত্তোজিত জনতা তাকে পিটিয়ে হত্যা করে গায়ে আগুন ধরিয়ে দেয়। ঘটনাস্থল পরিদর্শন করে দেখা যায়,উত্তেজিত শত শত জনতা দিনাজপুর-পঞ্চগড় মহাসড়কে গাছ কেটে ফেলে তিন ঘন্টা অবরোধ করে বিচার দাবি করে।

বীরগঞ্জ থানার অফিসার ইনচার্জ সাকিলা পারভীন একদল পুলিশ নিয়ে গিয়ে ঘটনাস্থলে গিয়ে উত্তেজিত জনতাকে শান্ত করে মহাসড়ক থেকে অবরোধ তুলে নেয়। রবিউল ও সুরুজের লাশ উদ্ধার করে মর্গে প্রেরণ করা হয়েছে। ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছেন, পুলিশ সুপার মোঃ হামিদুল আলম (বি.পি.এম), অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (প্রশাসন) মাহফুজ জামান আশরাফ, সিনিয়র পুলিশ সুপার, কাহারোল মোঃ রুহুল আমিন, উপজেলা নির্বাহী অফিসার মোহাম্মদ তোফাজ্জল হোসেন। এ ব্যাপারে বীরগঞ্জ থানায় ২টি হত্যা মামলা দায়ের করা হয়েছে।

 

 

 

 

কিউএনবি/সাজু/৯ই আগস্ট, ২০১৮ ইং/বিকাল ৫:১০