ব্রেকিং নিউজ
২৬শে সেপ্টেম্বর, ২০১৮ ইং | ১১ই আশ্বিন, ১৪২৫ বঙ্গাব্দ | বিকাল ৪:৫০

ভান্ডারিয়া সরকারী কলেজের অনার্স শিক্ষার্থীদের পরীক্ষা কেন্দ্র পিরোজপুরে

 

মোঃ মামুন হোসেন,পিরোজপুর প্রতিনিধি : পিরোজপুরের ভান্ডারিয়ায় স্নাতক পাস কোর্সের পরীক্ষা কেন্দ্র থাকলেও এবারই প্রথম অনার্স ১ম বর্ষের (স্নাতক সম্মান) পরীক্ষা কেন্দ্র ভা-ারিয়ায় অনুমোদন পেয়েছে। ভা-ারিয়া মজিদা বেগম মহিলা বিশ্ববিদ্যালয় কলেজ এবং আমান উল্লাহ মহাবিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা সাম্প্রতিক অনুমোদিত ভান্ডারিয়া সরকারি কলেজ কেন্দ্রে পরীক্ষা দেয়ার সুযোগ পেলেও স্বয়ং ভান্ডারিয়া সরকারি কলেজের দেড় শতাধিক শিক্ষার্থী এ সুবিধা বঞ্চিত। সরকারী কলেজের স্নাতক সম্মান শ্রেণীর পরীক্ষার্থীদের পরীক্ষা কেন্দ্র এখনও জেলা সদর পিরোজপুরে বহাল রয়েছে। ফলে নদী পার হয়ে প্রায় ৩০ কিলোমিটার দুরে জেলা সদরে পরীক্ষায় অংশ নিতে গিয়ে চরম ভোগান্তিতে পড়ছে শিক্ষার্থীরা।

ভা-ারিয়া সরকারি কলেজের ব্যবস্থাপনা বিভাগের শিক্ষার্থী মেহেদি হাসান, আঁখি আক্তার, রাষ্ট্র বিজ্ঞান বিভাগের শিক্ষার্থী মো. মিরাজ সিকদার জানান, ভা-ারিয়া থেকে প্রায় ৩০ কি.মি দুরে গিয়ে এবং ৩ কি.মি দীর্ঘ খড়শ্রোতা কঁচা নদী পার হয়ে ঝুকি নিয়ে পিরোজপুর জেলা সদরে গিয়ে সোহরাওয়াদী সরকারি কলেজে জাতীয় বিশ্ব বিদ্যালয়ের অধীনে অনুষ্ঠেয় অনার্স (স্নাতক সম্মান) পরীক্ষার্থীদের পরীক্ষায় অংশ নিতে হত। ভান্ডারিয়া মজিদা বেগম মহিলা বিশ্ববিদ্যালয় কলেজ এবং আমান উল্লাহ মহাবিদ্যালয়ে শিক্ষার্থীরা এ দূর্ভোগ থেকে রক্ষা পেলেও ভা-ারিয়া সরকারি কলেজের দেড় শতাধিক শিক্ষার্থীদের এ দূর্ভোগ পোহাতে হবে। সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষ একটু দৃষ্টি দিলেই এসব শিক্ষার্থী এ দূর্ভোগ থেকে রক্ষা পেতে পারে।

এ বিষয়ে ভান্ডারিয়া সরকারী কলেজের অধ্যক্ষ প্রফেসর এম.ডি মাহবুব আলম বলেন, নিজ কলেজে তাদের পরীক্ষা দিতে সমস্যা হলে অন্য পরীক্ষার মত এ দেড় শতাধিক শিক্ষার্থীদের জন্য পৃথক একটি ভ্যেনু কেন্দ্রে অনুমোদন দিলে এ সমস্যার সমাধান সম্ভব। তা না হলে শিক্ষার্থীরা চরম ভোগান্তির শিকার হবে।

ভান্ডারিয়া উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা শাহীন আক্তার সুমী বলেন, বিষয়টি সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের এখতিয়ারভূক্ত। তবে পরীক্ষার্থীদের ভ্যেনু নিজ উপজেলায় হওয়া উচিত।

 

 

 

কিউএনবি/রেশমা/৯ই আগস্ট, ২০১৮ ইং/সকাল ৮:০০