২৪শে সেপ্টেম্বর, ২০১৮ ইং | ৯ই আশ্বিন, ১৪২৫ বঙ্গাব্দ | বিকাল ৩:৪১

বাংলাদেশের উন্নয়নে আওয়ামীলীগ সরকারের বিকল্প নেই : ইমরান আহমদ এম.পি

 

মোঃ রেজওয়ান করিম সাব্বির, জৈন্তাপুর (সিলেট) প্রতিনিধি : সিলেট ৪-আসনের সংসদ সদস্য ও ডাক টেলিযোগাযোগ এবং তথ্য ও প্রযুক্তি মন্ত্রনালয় সম্পর্কিত সংসদীয় স্থায়ী কমিটির সভাপতি ইমরান আহমদ বলেন বর্তমান সরকারের ঐকান্তি প্রচেষ্টায় ইতিপূর্বে বাংলাদেশকে মধ্যেম আয়ের দেশে উন্নিত হয়। বাংলাদেশকে উন্নয়নশীল দেশে রুপান্তরিত করতে হলে আওয়ামীলীগ সরকারকে পুনরায় নির্বাচিত করতে হবে। ৮ আগষ্ট বুধবার সকাল ১১টায় জৈন্তাপুর উপজেলা প্রশাসন ও প্রকল্প বাস্তবায়ন অফিস কর্তৃক আয়োজিত বিনামূলে ঢেউটিন ও গৃহ নির্মাণ বাবদ অর্থ বিতরণ অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্য সংসদ সদস্য এসকল কথা বলেন।

জৈন্তাপুর উপজেলা নির্বাহী অফিসার মৌরীন করিম এর সভাপতিত্বে ও সমাজসেবা কর্মকর্তা এ.কে.এম আজদ ভূইয়ার পরিচালনায় প্রধান অতিথি হিসাবে উপস্থিত ছিলেন সিলেট ৪-আসনের সংসদ সদস্য ও ডাক টেলিযোগাযোগ এবং তথ্য ও প্রযুক্তি মন্ত্রনালয় সম্পর্কিত সংসদীয় স্থায়ী কমিটির সভাপতি ইমরান আহমদ। বিশেষ অতিথি হিসাবে উপস্থিত ছিলেন সহকারি কমিশনার(ভূমি) মুনতাসির হাসান পলাশ, জৈন্তাপুর মডেল থানার অফিসার ইনচার্জ খাঁন মোঃ মাঈনুল জাকির, জৈন্তাপুর উপজেলা পরিষদের মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান শ্রী জয় মতি রানী, জৈন্তাপুর উপজেলা মুক্তিযোদ্ধা সংসদের সাবেক কমান্ডার সিরাজুল হক, নিজপাট ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান মঞ্জুর এলাহী সম্রাট, জৈন্তাপুর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান এখলাছুর রহমান, ফতেপুর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান আব্দুর রশিদ, চারিকাটা ইউনিয়নের সাবেক চেয়ারম্যান আইয়ুব আলী, জৈন্তাপুর উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা ফারুক হোসাইন, উপজেলা প্রাথমিক শিক্ষা কর্মকর্তা আব্দুল জলিল তালুকদার, উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তা নিরোধ চন্দ্র দাস, জৈন্তাপুর উপজেলা আওয়ামী সেচ্ছাসেবক লীগের সাবেক সভাপতি আব্দুল কাদির, জৈন্তাপুর উপজেলা ছাত্রলীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক সিরাজুল ইসলাম, জৈন্তাপুর উপজেলা যুবলীগের আহবায়ক আনোয়ার হোসেন, যুগ্ম আহবায়ক কুতুব উদ্দিন, যুবলীগ নেতা আমিন আহমদ, এরশাদুল আলম চৌধুরী সহ সরকারি বেসরকারি প্রতিষ্ঠানের প্রধান সহ উপজেলা আওয়ামীলীগ ও তার সহযোগী অঙ্গ সংগঠনের নেতৃবন্দরা উপস্থিত ছিলেন। অনুষ্ঠান পরবর্তী প্রধান অতিথি তার নিজস্ব তহবিল হতে ২হাজার টাকা করে ৪২জন উপকারভোগী এবং ২বান্ডিল করে ৩০বান্ডিল ঢেউটিন, ১৫জন উপকারভোগী কে, গৃহ নির্মাণ বাবদ ৩হাজার টাকা করে ৪২জন উপকার ভোগীকে এবং মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর ত্রাণ ও কল্যাণ তহবিলের জি আর ক্যাশ হতে ৩হাজার টাকা করে ৬৭জন উপকারভোগী মধ্যে বিতরন করা হয়।

 

 

 

 

কিউএনবি/সাজু/৮ই আগস্ট, ২০১৮ ইং/সন্ধ্যা ৬:২৯