১৮ই সেপ্টেম্বর, ২০১৮ ইং | ৩রা আশ্বিন, ১৪২৫ বঙ্গাব্দ | রাত ১১:৪০

সড়কে মিলল যুবলীগ নেতার গুলিবিদ্ধ লাশ

 

ডেস্কনিউজঃ নড়াইলে সড়কের পাশ থেকে যশোরের বাঘারপাড়া উপজেলা যুবলীগের আহবায়ক কমিটির সদস্য তরিকুল ইসলামের(২৭) গুলিবিদ্ধ লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ।

বুধবার (৮ আগষ্ট) সকাল ৮টার দিকে নড়াইল-যশোর সড়কের শহর সংলগ্ন সীতারামপুর ব্রীজ এলাকা থেকে তার মৃতদেহ উদ্ধার করে। নিহত তরিকুল যশোরের বাঘারপাড়া উপজেলার জামদিয়া গ্রামের মিজানুর বিশ্বাসের ছেলে। তিনি জামদিয়া বাজারের একজন সার ও কীটনাশক ব্যবসা করতেন

তরিকুলকে গত ৩ আগষ্ট তার ব্যবসা প্রতিষ্ঠান থেকে সাদা পোষাকে অস্ত্রধারীরা তুলে নিয়ে যায়। ঘটনার ৫দিন পর তার গুলিবিদ্ধ লাশ পাওয়া গেল।

নড়াইল সদর থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) আনোয়ার হোসেন জানান, বুধবার সকালে স্থানীয় লোকজন ও পথচারীরা নড়াইল-যশোর সড়কের সীতারামপুর ব্রীজ এলাকায় রাস্তার পাশে একটি মৃতদেহ পড়ে থাকতে দেখে থানা পুলিশকে খবর দেয়।

খবর পেয়ে ঘটনাস্থল থেকে মৃতদেহটি উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য সদর হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হয়েছে। এ ব্যাপারে নিহতের পরিবারের পক্ষ থেকে এজাহার জমা দিলেই আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে।

নিহতের পরিবারের সদস্যরা জানান, শুক্রবার (৩ আগষ্ট) সন্ধ্যায় জামদিয়া বাজার থেকে তরিকুলকে তার সার ও কীটনাশকের ব্যবসা প্রতিষ্ঠান থেকে সাদা পোষাকে অস্ত্রধারী ডিবি পুলিশ তুলে নিয়ে যায়। পরে যশোরে ডিবি পুলিশের সাথে যোগাযোগ করা হলে আটকের বিষয়টি অস্বীকার করে। এ বিষয়ে বাঘারপাড়া থানায় জিডি করতে গেলেও পুলিশ জিডি গ্রহণ করেনি।

যশোরের বাঘারপাড়া উপজেলা যুবলীগের আহবায়ক কমিটির যুগ্ম আহবায়ক কামরুজ্জামান লিটন জানান, নিহত তরিকুল বাঘারপাড়া উপজেলা যুবলীগের আহবায়ক কমিটির সদস্য। তার বিরুদ্ধে থানায় কোন মামলা নেই। মাদকের সাথেও তার কোন সম্পৃক্ততা নেই। তাকে ডিবি পুলিশ ধরে নিয়ে কয়েকদিন ধরে আটকে রেখে বিনা কারণে ক্রসফায়ার দিয়ে হত্যা করেছে। পরিকল্পিত এ হত্যাকাণ্ডের সঠিক তদন্ত ও বিচার দাবি করেছেন তিনি।

বাঘারপাড়া থানার অফিসার ইনচার্জ মোঃ মঞ্জুরুল আলম জানান, তরিকুলের নামে বাঘারপাড়া থানায় কোন মামলা নেই। কি কারণে খুন হয়েছে তাও তিনি জানেন না বলে জানান।

 

কিউটিভি/রামিম/৮ই আগস্ট, ২০১৮ ইং/ দুপুর ১২:৩২