২৩শে সেপ্টেম্বর, ২০১৮ ইং | ৮ই আশ্বিন, ১৪২৫ বঙ্গাব্দ | রাত ১০:২০

সামাজিক সংগঠন “হৃদয়ের বন্ধুসভা”, দ্রুত গতিতে এগিয়ে চলছে

 

নজরুল ইসলাম তোফা:: গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের এখন মিশনটাই হচ্ছে- মাদক, বাল্য বিয়ে এবং যৌতুক প্রতিরোধ, এই মিশনের সঙ্গে একত্মতা ঘোষণা করে দিন রাত কাজ করে চলেছেন হৃদয়ের বন্ধুসভার সকল সদস্য। ২০১৩ সালের ২৪ নভেম্বর মওলানা ভাসানী ডিগ্রি কলেজের একটি মনোরম পরিবেশেই উপজেলা নির্বাহী অফিসার মোহাম্মাদ সালাউদ্দিনের হাত ধরে এ সংগঠনের শুভ উদ্বোধন অনুষ্টিত হয়। জানা যায়, এ সংগঠনে এখন প্রায় ৩০০ সদস্য, দেশ এর জন্য কাজ করে যাচ্ছে।

এই সংগঠনের প্রধান উপদেষ্টা বীর মুক্তিযোদ্ধা ও সাংবাদিক গাজী মান্না রায়হান, সভাপতি সাংবাদিক মারুফ সরকার এবং সাধারণ সাম্পাদক ইঞ্জিনিয়ার আরিফুল ইসলাম সোহাগ। তাদেরই কঠোর পরিশ্রমে সংগঠন খুব দ্রুত এগিয়ে যাচ্ছে। বেশ কিছুদিন আগেই কক্সবাজারের উখিয়াতে রোহিঙ্গাদের সাহায্য করেছেন এ ‘হৃদয়ের বন্ধুসভা’। সেখানেও হৃদয়ের বন্ধুসভার ত্রান বিতরণ কমিটি করা হয়েছিল।সেই কমিটিতেই গাজী মান্না রায়হানকে আহবায়ক এবং জেলা ছাত্রলীগ এর সাবেক সাধারণ সম্পাদক জাকির হোসেন কে যুগ্ন আহবায়ক করে ৫ সদস্য বিশিষ্ট একটি টীম সাহায্য করতে গিয়েছিলেন। তাছাড়াও এমন কমিটি কোথাও বাল্য বিয়ের খবর পেলেই তারা খুব দ্রুততার সাথে উপজেলা প্রশাসন এবং পুলিশ প্রশাসন এর মাধ্যমে বাল্য বিয়েটি বন্ধ করতে তৎপর হয়।

বেশকিছু বাল্য বিয়ে এ হৃদয়ের বন্ধুসভা সংগঠন বন্ধ করতে সক্ষম হয়েছেন।সিরাজগঞ্জ সদর উপজেলায় সব স্কুলেই বন্ধুসভার কমিটি রয়েছে। জানা যায়, রহমতগঞ্জ বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ে মাদক এবং বাল্যবিয়ের উপর আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়। সেখানেই এই বিষয়ে সিরাজগঞ্জ সদর উপজেলা নির্বাহী অফিসার সরকার মোহাম্মদ রায়হান বলেছেন, আমরা জানি এই সংগঠনটি খুব ভালো ভালো কাজ করে যাচ্ছে। দেখা যায় যে অল্প সময়ে একটি সংগঠন দাঁড়াতে পারে না। কিন্তু এই সংগঠন ঠিক তার উল্টো। প্রমাণ দিয়েছে তারা খুব অল্প সময়েই এ সংগঠনটি দাঁড় করে। আমরা আশা করবো ভবিষ্যতে এই সংগঠন আরো ভালো ভালো কাজ করবে। আবার এ অনুষ্ঠানে অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক সার্বিক সৈয়দ ইরতিজা আহসান জানান, আমি তাদের পরপর ২টি অনুষ্ঠানের প্রধান অতিথি ছিলাম।

তাদের সংগঠনের কর্মসূচি আমাকে অনেক আনন্দ দিয়েছে। বলতেই হয়, তারা অবশ্যই অনেক প্রশংসার দাবিদার। আমি জানি, তারা যেই কাজ করুক না কেন সেটাই সরকারের পক্ষের কাজ। তাই আমি আশা করবো সরকার হৃদয়ের বন্ধুসভাকে সাহায্য করবে। এমন এ সংগঠনের কোনো প্রকার ফান্ড নেই তাই আমরা ভালো করে কাজ করতে পারি না। যদি কেউ এমন সংগঠনকে একটু সাহায্য করেন তাহলে এ সংগঠন যে কোনো ভালো কাজ সবার আগেই করবে বলে জানিয়েছেন সংগঠনের সভাপতি মারুফ সরকার। মারুফ সরকার আরো জানান, এই সংগঠনের কেউ সাহায্য করে না।

আমরা কারো কাছ থেকে সাহায্য না। আমি সাংবাদিকতা করে যাকিছু উপার্জন করি তা দিয়েই সংগঠনের কাজ করি। আর পারি না তাই সরকারের কাছে আকুল আবেদন, দয়া করে এমন সংগঠনকে সামনের দিকে নিয়ে যেতে একটু সাহায্য করুন, না হলে হয়তো বাল্য বিয়ে ও মাদক বিরোধী সংগঠন হৃদয়ের বন্ধুসভা হারিয়ে যাবে। কারণ শুধু একজন তো আর সংগঠন চালাতে পারে না। হৃদয়ের বন্ধুসভা সংগঠনের ফেসবুকে গ্রুপ রয়েছে ridoyer bondhusova,sirajganj নামে লিখলেই চলে আসবে। তাছাড়াও যদি কেউ এই সংগঠনকে সাহায্য করতে চান বা সদস্য হতে চান তাইলে দয়া করে নিম্নের নাম্বারে যোগাযোগ করবেন। সভাপতি মারুফ সরকার :০১৬৪২৩৪৭৪৭৮ লেখক: নজরুল ইসলাম তোফা, টিভি ও মঞ্চ অভিনেতা, চিত্রশিল্পী, সাংবাদিক, কলামিষ্ট এবং প্রভাষক।

 

 

 

কিউএনবি/রেশমা/৮ই আগস্ট, ২০১৮ ইং/সকাল ১০:১০