২০শে নভেম্বর, ২০১৮ ইং | ৬ই অগ্রহায়ণ, ১৪২৫ বঙ্গাব্দ | সন্ধ্যা ৬:০৮

যমুনা সার কারখানা কলোনীর নিরাপত্তা বলয়ে শিক্ষার্থীদের বিক্ষোভ!

 

জাকারিয়া জাহাঙ্গীর,সরিষাবাড়ী (জামালপুর) প্রতিনিধি : জামালপুরের সরিষাবাড়ী উপজেলার তারাকান্দিতে অবস্থিত কেপিআই-১ মানসম্পন্ন দেশের বৃহৎ শিল্প প্রতিষ্ঠান যমুনা সার কারখানা (জেএফসিল) কলোনীতে শিক্ষার্থীরা বিক্ষোভ মিছিল করেছে। কারখানার নিজস্ব সার্বক্ষনিক নিরাপত্তা বাহিনী, পুলিশ ও আনসার সদস্যদের চোখের সামনেই রবিবার রাতে মিছিলটি অনুষ্ঠিত হয়।

স্থানীয়রা জানান, ১৫ আগস্ট স্মরণে মোমবাতি প্রজ্জ্বলন কর্মসূচির নামে রাত সাড়ে ৮টার দিকে সার কারখানা কলোনীর কেন্দ্রীয় মসজিদের গোল চত্বরে বেশকিছু শিক্ষার্থী জড়ো হয়। স্থানীয়রা তাদের প্রশ্ন করলে ‘ঢাকায় সড়ক দুর্ঘটনায় সহপাঠী নিহতের স্মরণে মোমবাতি প্রজ্বলন করা হচ্ছে’ বলে জানায়। পরে তারা নিরাপদ সড়কের দাবিতে শ্লোগান দিয়ে একটি বিক্ষোভ মিছিল বের করে। কঠোর নিরাপত্তা বলয়ের মধ্যে সরকারবিরোধী বিক্ষোভ হওয়ায় প্রশাসনের ভূমিকা নিয়ে জনমনে নানা প্রশ্নের সৃষ্টি হয়।

এ ব্যাপারে উপজেলা আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক ও তারাকান্দি ট্রাক-ট্যাঙ্কলরি মালিক সমিতির সাধারণ সম্পাদক রফিকুল ইসলাম অভিযোগ করেন, কারখানার প্রশাসনে বিএনপি-জামাতের লোকজনের ঈন্ধনেই বিক্ষোভ হয়েছে। বিক্ষোভকারীরা লেডিস ক্লাব পর্যন্ত প্রদক্ষিণ ও প্রায় ঘন্টাখানেক অবস্থান করেছে। তাদের পরিকল্পনা আরো বড় ধরণের ছিল ও স্থানীয়দের বাধায় তা সম্ভব হয়নি বলেও তিনি জানান।

বিক্ষোভের বিষয়টি স্বীকার করে কারখানার মহাব্যবস্থাপক (প্রশাসন) শরিফুল ইসলাম বলেন, ১৫ আগস্ট স্মরণে মোমবাতি প্রজ্জ্বলন শেষে যমুনা সার কারখানা স্কুল এন্ড কলেজের প্রায় একশ’ শিক্ষার্থী বিক্ষোভ করে। তখন আমরা অফিসার্স ক্লাবে ছিলাম, হৈচৈ শুনে নিরাপত্তাকর্মীরা ঘটনাস্থলে গিয়ে তাদের থামায়।

যমুনা সার কারখানা স্কুল এন্ড কলেজের অধ্যক্ষ আশরাফুল ইসলাম বলেন, ‘এশার নামাজ চলাকালে কিছুলোক নিরাপদ সড়কের দাবিতে শ্লোগান দেয়। এ ঘটনার সাথে শিক্ষার্থীরা জড়িত না বলে তিনি অস্বীকার করেন।

এ ব্যাপারে তারাকান্দি তদন্ত কেন্দ্রের ইনচার্জ পুলিশ পরিদর্শক জোয়াহের হোসেন খান জানান, বিষয়টি আমি জানতাম না। শোনার পর রাত ১২টার দিকে কারখানার প্রশাসন, নিরাপত্তা বিভাগ ও শিক্ষা প্রতিষ্ঠান প্রধানের সাথে বৈঠক করা হয়। এছাড়া স্থানীয় বিদ্যালয়গুলোতে শিক্ষার্থীদের লেখাপড়ায় মনোযোগ দিতে বলা হয়।

 

 

 

কিউএনবি/সাজু/৬ই আগস্ট, ২০১৮ ইং/রাত ৮:৪৩