১৮ই নভেম্বর, ২০১৮ ইং | ৪ঠা অগ্রহায়ণ, ১৪২৫ বঙ্গাব্দ | রাত ১০:৩৪

শনিবার দেশের সব শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে ছাত্র ধর্মঘটের ডাক

 

ডেস্কনিউজঃ নিরাপদ সড়কের দাবিতে আন্দোলনকারী শিক্ষার্থীদের সঙ্গে একাত্মতা প্রকাশ করেছে কোটা আন্দোলকারী সংগঠন বাংলাদেশ সাধারণ ছাত্র অধিকার সংরক্ষণ পরিষদ। পাশাপাশি সারাদেশের সকল শিক্ষা-প্রতিষ্ঠানে শনিবার ছাত্র ধর্মঘট ডেকেছে সংগঠনটি।

শুক্রবার (৩ আগস্ট) জাতীয় প্রেস ক্লাবের সামনে এক সংবাদ সম্মেলনে সংগঠনটি এ কর্মসূচি দিয়েছে। এতে উপস্থিত ছিলেন সংগঠনের যুগ্ম আহ্বায়ক বিন ইয়ামিন মোল্লা, মোজাম্মেল মিয়াজী ও জালাল আহমেদ।

বিন ইয়ামিন মোল্লা বলেন, ‘কুর্মিটোলায় দুই শিক্ষার্থীকে বাসচাপা দিয়ে হত্যা করা হয়েছে। এর প্রতিবাদে ছাত্ররা রাস্তায় নেমেছে। কিন্তু ছাত্রদের শান্তিপূর্ণ আন্দোলনকে নস্যাৎ করার জন্য হামলা চালানো হয়েছে। ছাত্রদের মারধর করা হচ্ছে, নির্যাতন করা হচ্ছে। এর প্রতিবাদে শনিবার দেশের সকল শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে ধর্মঘট পালন করা হবে।’

‘ধর্মঘটে ক্লাস-পরীক্ষা বন্ধ রাখার আহ্বান জানান কোটা আন্দোলনের এ নেতা। পাশাপাশি ধর্মঘট পালনের জন্য সকল শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের শিক্ষার্থী, শিক্ষক ও অভিভাবকদের আহ্বান জানানো হয়েছে।’

সংবাদ সম্মেলনে বলা হয়, ‘কোটা সংস্কার আন্দোলনকারীরা তিন দফা দাবি দিয়েছে। পাশাপাশি নিরাপদ সড়কের দাবিতে শিক্ষার্থীরা ৯ দফা দাবি দিয়েছে। সরকারকে অনুরোধ করি আপনারা দাবিগুলো মেনে নিন।’

আপনাদের আন্দোলনে রাজনৈতিক দলের ইন্ধন আছে কি না জানতে চাইলে সাধারণ ছাত্র অধিকার সংরক্ষণ পরিষদের আহ্বায়ক বলেন, ‘এটি আমাদের অধিকার আদায়ের আন্দোলন। আজই যদি আমাদের দাবি মেনে নেওয়া হয় তাহলে আমরা আমাদের আন্দোলনও বন্ধ করে দেব। আমাদের আন্দোলনে কোনো রাজনৈতিক দলের ইন্ধন নেই।’

গত ২৯ জুলাই দুপুরে রাজধানীর কুর্মিটোলা জেনারেল হাসপাতালের অদূরে বিমানবন্দর সড়কে বাসচাপায় রমিজউদ্দিন ক্যান্টনমেন্ট কলেজের দুই শিক্ষার্থী নিহত হয়। ওইদিন জাবালে নূর পরিবহনের একটি বাস তাদের চাপা দেয়।

নিহতরা হলো দিয়া খানম মীম ও আব্দুল করিম। এ সময় বেশ কয়েকজন শিক্ষার্থী গুরুতর আহত হয়।

এ ঘটনায় রাজপথে নেমে ৯ দফা দাবি জানায় শিক্ষার্থীরা। গত পাঁচ দিন ধরে শিক্ষার্থীরা রাজধানীর সড়ক অবরোধ ও বিক্ষোভ করে অাসছে।

বুধবার (১ আগস্ট) বিকেলে বাস মালিক ও শ্রমিকদের সঙ্গে বৈঠক করে শিক্ষার্থীদের দাবি মেনে নেওয়ার কথা জানান স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী।

পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে বৃহস্পতিবার (২ আগস্ট) সারাদেশের সকল শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান ছুটি ঘোষণা করে। এরপরও বৃহস্পতিবার শিক্ষার্থীরা আন্দোলন করে।

নিহত দুই পরিবারকে ২০ লাখ টাকা করে সহায়তা দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

 

কিউএনবি/বিপুল/৩রা আগস্ট, ২০১৮ ইং/রাত ৯:২৮