২৩শে সেপ্টেম্বর, ২০১৮ ইং | ৮ই আশ্বিন, ১৪২৫ বঙ্গাব্দ | রাত ৮:২১

বগুড়ায় অবুঝ শিশুকে পানিতে ফেলে হত্যা করলো চাচী

 

এম নজরুল ইসলাম বগুড়া অফিস : ৪ মাসের শিশু সন্তানকে দোলনায় শুইয়ে রেখে তার মা রান্না ঘরে কাজ করছিলেন। অবুঝ শিশুটিতে দোলনা থেকে তুলে নিয়ে পুকুরের পানিতে ফেলে হত্যা করেছে পাষন্ড চাচী। পারিবারিক বিরোধের জেরেই শিশুকে হত্যা করা হয়েছে বলে দাবি পুলিশ ও শিশুর পরিবারের। বৃহস্পতিবার (২ আগস্ট) বগুড়ার দুপচাঁচিয়া উপজেলার জিয়ানগর ইউনিয়নের মর্তুজাপুর খাঁপাড়া গ্রামে এ ঘটনা ঘটে।

পুলিশ জানিয়েছে, খাঁপাড়া গ্রামের আশরাফুল ইসলামের ৪ মাসের শিশু সন্তান আবিদ হাসান ফাহিনকে বৃহস্পতিবার দুপুরে বারান্দায় দোলনায় শুইয়ে রেখে তার মা রান্না ঘরে কাজ করছিলেন। একটু পরে তিনি এসে দেখেন তার ছেলে দোলনায় নেই। শিশু ফাহিনের বাবা-মামা, পরিবারের লোকজন ও স্থানীয়দের সাথে নিয়ে খোঁজাখুঁজি করতে থাকেন। দুপুর আড়াইটার দিকে গ্রামের লোকজন বাড়ির পাশে জনৈক মনসুরের পুকুরের পানিতে মৃত অবস্থায় শিশু ফাহিনকে উদ্ধার করে।

খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে ফাহিনের লাশ উদ্ধার করে থানায় নিয়ে আসে।
শুক্রবার (৩ আগস্ট) শিশু ফাহিনের লাশের ময়না তদন্তের জন্য বগুড়া শহীদ জিয়াউর রহমান মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের মর্গে প্রেরণ করেছেন। ফাহিন নিহতের ঘটনায় সন্দেহ হলে পুলিশ তার চাচী ফরিদা বেগমকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য থানায় নিয়ে আসেন। জিজ্ঞাসাবাদের একপর্যায়ে ফরিদা বেগম ফাহিনকে হত্যার কথা স্বীকার করেন।

দুপচাঁচিয়া থানার ওসি আব্দুর রাজ্জাক এ তথ্য নিশ্চিত করে জানান, শিশু ফাহিনকে হত্যার দায় স্বীকার করেছে চাচী ফরিদা বেগম। এ ঘটনায় শিশুর পিতা আশরাফুল ইসলাম বাদী হয়ে থানায় একটি হত্যা মামলা দায়ের করেছেন। 

 

 

কিউএনবি/আয়শা/৩রা আগস্ট, ২০১৮ ইং/রাত ৮:৫৯