ব্রেকিং নিউজ
১৪ই নভেম্বর, ২০১৮ ইং | ৩০শে কার্তিক, ১৪২৫ বঙ্গাব্দ | বিকাল ৫:১৮

পুলিশ আন্দোলনকারী ভাই ভাই, নিরাপদ সড়ক চাই

 

এম নজরুল ইসলাম,বগুড়া : রাজধানীতে বাস চাপায় দুই শিক্ষার্থী নিহতের প্রতিবাদ ও নিরপদ সড়কের দাবিতে বগুড়ায় বিক্ষোভ করেছে শিক্ষার্থীরা। বিক্ষোভে বেশ কিছু অভিভাবককে তাদের সন্তানদের সাথে যোগ দিতে দেখা গেছে। তবে বিক্ষোভে শহরে অপ্রীতিকর ঘটনা না ঘটলেও তিনমাথা কামারগাড়ী এলাকায় গাড়ি ভাঙচুর করেছে শিক্ষার্থীরা।

বৃহস্পতিবার বিভিন্ন রাস্তা হয়ে স্লোগান দিতে দিতে শিক্ষার্থীরা প্রতিবাদের স্লোগান লেখা ফেস্টুন প্লেকার্ড হাতে নিয়ে বগুড়ার শহরের সাতমাথায় আসতে থাকে। প্রায় আড়াই ঘন্টা সাতমাথার সড়কগুলো অবরোধ করে রাখে। তবে আইন শৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্যরা শিক্ষার্থীদের ঘিরে রাখলেও বাধা দেয়নি। সতর্ক অবস্থানে ছিল পুলিশ।

বগুড়া সরকারি আজিজুল হক কলেজ, শাহ সুলতান কলেজ, বিয়াম ল্যাবরেটরী স্কুল এন্ড কলেজ, আর্মড পুলিশ ব্যাটালিয়ন, বগুড়া সরকারী কলেজসহ বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানের শিক্ষর্থীরা বিক্ষোভে অংশ নেয়।

পরে কিছু শিক্ষার্থী মিছিল নিয়ে শহরের তিনমাথা সড়কের কামারগাড়ী এলাকায় গিয়ে নিশিতা এন্টারপ্রাইজ নামে একটি ট্রাক ও শ্যামলী এন্টারপ্রাইজের বাসে ইটপাটকেল নিক্ষেপ করে গ্লাস ভাঙচুর করে। সেখান থেকে মিছিল নিয়ে ফেরার পথে ষ্টেশনের সামনে দাঁড়িয়ে থাকা করতোয়া এন্টারপ্রাইজ নামের একটি বাসে ইট পাটকেল নিক্ষেপ করে ও গ্লাস ভাঙচুর করে। তবে শহরের পরিবেশ স্বাভাবিক।

বিক্ষোভের সময় শিক্ষার্থীদের সাথে স্লোগানে মুখ মিলিয়ে বগুড়ার অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (মিডিয়া) সনাতন চক্রবর্তী বলেন, ‘পুলিশ আন্দোলনকারী ভাই ভাই, নিরাপদ সড়ক চাই’। পুলিশ কর্মকর্তার এই স্লোগানের পরপরই পরিবেশ শান্ত হয়ে যায়। শিক্ষার্থীদের বুকে টেনে নিয়ে তাদের সাথে সেলফি তুলেছেন এই পুলিশ কর্মকর্তা সহ অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মকবুল হোসেন, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার গাজিউর রহমান সহ পুলিশ কর্মকর্তা ও সদস্যরা। এর কিছুক্ষন পরেই অতিরিক্ত পুলিশ সুপার সনাতন চক্রবর্তী তার ব্যক্তিগত ফেসবুকে বিক্ষোভকারী শিক্ষার্থীদের সঙ্গে তোলা বেশ কিছু ছবি সহ লিখেছেন, ‘পুলিশ আন্দোলনকারী ভাই ভাই, নিরাপদ সড়ক চাই’।

এদিকে, শিক্ষার্থীদের বিক্ষোভের বিষয়টি জেনে সাতমাথায় ছুটে যান বগুড়া জেলা যুবলীগের সভাপতি শুভাশীষ পোদ্দার লিটন, জেলা ছাত্রলীগের সভাপতি নাইমুর রাজ্জাক তিতাস ও সাধারণ সম্পাদক অসীম কুমার রায়। আন্দোলনরত শিক্ষার্থীদের দাবির সাথে একমত হয়ে বক্তব্য রাখেন তারা। রিপোর্ট: এম নজরুল ইসলাম।

 

 

কিউএনবি/সাজু/২রা আগস্ট, ২০১৮ ইং/রাত ৯:৪২