২৫শে সেপ্টেম্বর, ২০১৮ ইং | ১০ই আশ্বিন, ১৪২৫ বঙ্গাব্দ | রাত ১১:১৬

কোরবানির জন্য চাহিদার অতিরিক্ত পশু রয়েছে দিনাজপুরে

 

ডেস্ক নিউজ : আসন্ন ঈদ উল আজহাকে কেন্দ্র করে দিনাজপুর জেলায় ১ লাখ ৮৮ হাজার ৭৪৮টি কোরবানীর পশু (গরু, ছাগল, ভেড়া ও মহিষ) প্রস্তুত করেছেন খামারিরা। যা জেলার চাহিদা মিটিয়ে দেশের বিভিন্ন স্থানে সরবরাহ করা সম্ভব হবে।

এদিকে এবার জেলায় প্রায় ১ লাখ ২০ হাজার কোরবানীর পশু প্রয়োজন হবে বলে জেলা প্রাণি সম্পদ বিভাগ জানিয়েছে। সেখানে লক্ষ্যমাত্রার চেয়ে উদ্বৃত্ত রয়েছে সাড়ে ৬৮ হাজার পশু। তবে গতবারের তুলনায় এবার কিছু বেশি কোরবানি হবে বলে মনে করা হচ্ছে।

খাদ্যে ভেজাল না দেওয়ার জন্য ফুড মালিকদের সঙ্গে বৈঠকসহ অসুস্থ পশু যাতে বাজারে না আসে সেই জন্য পদক্ষেপ গ্রহণ করা হয়েছে। প্রাণি সম্পদ বিভাগের পরামর্শে পুষ্টিকর খাবার তথা খৈল, গম, ভুষি, ছোলাসহ সবুজ ঘাস খাইয়ে খুব সহজেই গোবাদি পশু মোটাতাজা করে কোরবানির জন্য প্রস্তুত করা হচ্ছে। এসব কাজ মনিটরিংসহ বিভিন্ন সচেতনতামুলক পরামর্শ দিচ্ছে জেলা প্রাণীসম্পদ বিভাগ। 

দিনাজপুর জেলা প্রাণীসম্পদ কর্মকর্তা ডা. মো. শাহিনুর আলম জানান, গরু ও মহিষ ১ লাখ ১৬ হাজার ৬২৮ এবং ছাগল-ভেড়া রয়েছে ৭২ হাজার ১২০টি। দিনাজপুরে আসন্ন কোরবানির ঈদে প্রয়োজন গরু-মহিষ প্রায় ৮৫ হাজার এবং ছাগল-ভেড়া ৩৫ হাজার। শুধু কোরবানির ঈদকে সামনে রেখে ছোট-বড় খামার ও বাড়িতে প্রস্তুত রয়েছে ৬০ হাজার পশু। ক্রেতা বিক্রেতাদের সচেতনতার জন্য ইতিমধ্যেই প্রাণিসম্পদ বিভাগ থেকে বিভিন্ন ধরনের পরামর্শ দেওয়া ও মনিটরিং করা হচ্ছে।

 

 

 

কিউএনবি/আয়শা/১লা আগস্ট, ২০১৮ ইং/রাত ৯:০৪