১৯শে সেপ্টেম্বর, ২০১৮ ইং | ৪ঠা আশ্বিন, ১৪২৫ বঙ্গাব্দ | বিকাল ৫:৩০

বান্দরবানের লেমুঝিরি মুসলিম পাড়ায় রাস্তার উন্নয়ন কাজ বন্ধ থাকায় এলাকাবাসীর দূর্ভোগ চরমে

 

রতন কুমার দে (শাওন)বান্দরবান প্রতিনিধি :  জনৈকা জাহানারা বেগমের
আপত্তিতে রাস্তার উন্নয়ন কাজ বন্ধ রয়েছে বলে অভিযোগ উঠেছে।জানা গেছে বান্দরবান সদর ইউনিয়নের অর্ন্তগত বালাঘাটা লেমুঝিরি মুসলিম পাড়ায় জেলা পরিষদের অর্থায়নে চলমান রাস্তার কাজটি বন্ধ রয়েছে।

ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠান চৌধুরী এন্ড ব্রাদার্স এর স্বত্তাধীকারী মং মং চিং মার্মা জানান ১৯,৯৯,৯৯৯/- টাকা ব্যয়ে উক্ত কাজটি আমার প্রতিষ্ঠান পায়।
উক্ত কাজটি অর্ধেক করার পর বন্ধ আছে।

ফলে এলাকাবাসী চরম দুর্ভোগ ও আমি আর্থিক ক্ষতির সম্মুখিন হচ্ছি। আমি এর দ্রুত সমাধান চাই।এলাকাবাসীর অভিযোগ জাহানারা বেগম নামক জনৈক মহিলা চলমান কাজের রাস্তাটি আংশিক তার ক্রয়কৃত জায়গা
বলে দাবি করায় ও পুলিশের অনুরোধক্রমে রাস্তার কাজটি বন্ধ রয়েছে।

এই প্রতিবেদক বাদীনির কাছে ঘটনার সত্যতা জানতে চাইলে তিনি উক্ত রাস্তার আংশিক জায়গা তার দাবি করে এবং এটা নিয়ে হাফেজ আহমদ চৌধুরীর সাথে জায়গা জমি নিয়ে একটি মামলা চলমান বলে জানান। এলাকাবাসী ও উপজেলা প্রশাসন সূত্রে জানা যায় বিষটি উভয়পক্ষকে সমঝোতার মাধ্যমে মিমাংশা করার জন্য বলা হয়।

এটা নিয়ে এলাকাবাসী সহ উভয়পক্ষ বৈঠকে বসলে কোন সমাধানে পৌছাতে পারে নাই।সমঝোতার বৈঠকের একজন সাবেক সোনালী ব্যাংক কর্র্মকর্তা হারুনুর রশিদ ও প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মনোয়ার হোসেন জানান বৈঠকে জাহানারা বেগম বিরোধ পূর্ণ আংশিক জায়গাটি তার বলে প্রমাণ করতে পারে নাই।

এদিকে সদর ইউনিয়নের জন প্রতিনিধি পাইং মার্মা ও ক্যহ্লাও মার্মা জানান এলাকার জন্য রাস্তাটি খুবই দরকার।২০-২৫ বছর আগের কাঁচা রাস্তাটির বাকি অর্ধেক কাজ সংস্কার করে অত্র এলাকার জনগনের চলাচলের দূভোগ নিরশনের জন্য আমরা প্রশাসন সহ যথাযথ কর্তৃপক্ষের দৃষ্টি আকর্ষন করছি।

এলাকাবাসী জনিপ্রু মার্মা ও হোসনেয়ারা বেগম বলেন উক্ত রাস্তাটি দিয়ে আমাদের ২৫ পরিবারের যাতায়াত রয়েছে।তাছাড়া এখানে একটি খ্যাং সম্প্রদায়ের আবাসিক ছাত্রাবাস,পর্যটকদের জন্য কয়েকটি কটেজ, কাচাঁমাল সহ নিত্যপ্রয়োজনীয় জিনিস পত্র আনা নেওয়ার জন্য একমাত্র রাস্তা, আর বিকল্প রাস্তাও নেই।

অনেক কষ্টে সরকারি বরাদ্দ পাওয়া চলমান রাস্তাটি অবিলম্বে চলাচল উপযোগী করার জন্য আবেদন জানায়। হাফেজ আহমদ চৌধুরীর সন্তান নাছির উদ্দিন চৌধুরী ও বান্দরবান পার্বত্য জেলা পরিষদের সদস্য  খ্যাং বলেন ঠুনকো অজুহাতে সরকারের উন্নয়ন কাজ বন্ধ থাকতে পারে না। জনস্বার্থে ও খ্যাং ছাত্রাবাসের ছাত্রদের চলাচলের সুবিধার্থে রাস্তার কাজ পুনরায় শুরু করার জন্য তারা জোর দাবি জানান।

কিউএনবি/রেশমা/৩১শে জুলাই, ২০১৮ ইং/দুপুর ১:৪৩