২৩শে সেপ্টেম্বর, ২০১৮ ইং | ৮ই আশ্বিন, ১৪২৫ বঙ্গাব্দ | সকাল ১০:৩৭

নরসিংদীতে সোর্স দিয়ে ইয়াবা রেখে পুলিশের অভিযান দুই এএসআই ক্লোজড

মোঃ সালাহউদ্দিন আহম্মেদ,নরসিংদী : নরসিংদীর শিবপুরে সোর্স দিয়ে ইয়াবা রেখে ব্যবসায়ীকে ফাঁসাতে গিয়ে গণরোষে পড়া দুই এএসআইকে ক্লোজ করা হয়েছে। গত রবিবার এএসআই কাজী শাহিন ও কাঞ্চন মিয়াকে থানা থেকে পুলিশ লাইনে প্রত্যাহার করে নেওয়া হয়। এর আগে শুক্রবার সন্ধ্যায় বাজনাব বাসস্ট্যান্ডের এক চা বিক্রেতাকে ফাঁসাতে গিয়ে তারা ফেঁসে যায়।

ষড়যন্ত্রের শিকার চা বিক্রেতা শাহ আলম জানান, সন্ধ্যার দিকে পুলিশের সোর্স সুজন তার দোকানে একটি সিগারেটের প্যাকেট রেখে যায়। এ সময় আগে থেকে ওঁৎ পেতে থাকা এএসআই কাজি শাহিন ও এএসআই কাঞ্চন চায়ের দোকানে ঢুকে চা বিক্রেতা শাহ আলমকে সিগারেটেরে প্যাকেট উঠাতে বলেন। তিনি না উঠালে পুলিশ নিজেই উঠিয়ে ৩টি ইয়াবা থাকার কথা জানায়। শাহ আলম এর প্রতিবাদ জানিয়ে বলেন, এটা আপনাদের সোর্স রেখে গেছে। এই সময় আশপাশের লোকজন জড়ো হলে গণরোষে পড়ে তারা কেটে পড়েন।

উত্তেজিত লোকজন সোর্স সুজনকে ধরে এনে জিজ্ঞাসাবাদ করলে তিনি স্বীকার করেন, এএসআই কাঞ্চন মিয়া ও কাজি শাহিন সিগারেটের প্যাকেটে ৩টি বড়ি দিয়ে আমাকে শাহ আলমের দোকানের ক্যাশের ভিতর রাখতে বলেন। এ সময় খবর পেয়ে ওসি (তদন্ত) মমিনুল হক ঘটনাস্থলে গেলে সোর্স সুজনকে পুলিশে সোপর্দ করা হয়। ওই সময় ব্যবসায়ীরা অভিযুক্ত দুই এএসআইয়ের দৃষ্টান্তমূলক বিচারের দাবি জানান।

এই ব্যাপারে জানতে চাইলে শিবপুর মডেল থানার ওসি (তদন্ত) মমিনুল হক বলেন, আটক সোর্সকে মামলা দিয়ে কারাগারে পাঠানো হয়েছে। একই সঙ্গে অভিযুক্ত এএসআই কাজী শাহিন ও কাঞ্চন মিয়াকে থানা থেকে পুলিশ লাইনে প্রত্যাহার করে নেওয়া হয়েছে।

পুলিশ সুপার সাইফুল্লাহ আল মামুন ঘটনার সত্যতা নিশিচত করে বলেন, ঘটনাটি আমি শুনেছি। অভিযুক্তদের বিরুদ্ধে তদন্ত করে ব্যবস্থা নেওয়া হচ্ছে।

কিউএনবি/রেশমা/৩১শে জুলাই, ২০১৮ ইং/সকাল ১১:০৪