১৬ই নভেম্বর, ২০১৮ ইং | ২রা অগ্রহায়ণ, ১৪২৫ বঙ্গাব্দ | রাত ১০:৩২

বরিশালে বিএনপির ভোট বর্জন

 

ডেস্কনিউজঃ নানা অনিয়মের অভিযোগ এনে বরিশাল সিটি করপোরেশন নির্বাচন বর্জন করেছে বিএনপি।

সোমবার (৩০ জুলাই) দুপুর ১২টায় বরিশাল প্রেসক্লাবে আনুষ্ঠানিক সংবাদ সম্মেলনে এই বর্জনের ঘোষণা দেন নির্বাচনে বিএনপির মেয়রপ্রার্থী মজিবর রহমান সরোয়ার। তিনি জানান, জাতীয় পার্টি, বাংলাদেশের কমিউনিস্ট পাটি, বাংলাদেশের সমাজতান্ত্রিক দলের প্রার্থীরাও এই বর্জনের সঙ্গে একমত।

মজিবর রহমান বলেন, ‘সরকার ইচ্ছা করলে ঘোষণা দিয়েই এটা নিয়ে নিতে পারতো। ৯১ সাল থেকে আমি চারবার এমপি নির্বাচিত হয়েছি। এমন নির্বাচন আমি আর দেখি নাই।’

‘আমরা এখনই বরিশালের নির্বাচন কমিশন কার্যালয় ঘেরাও করবো এবং সেখানে সমাবেশ করবো। আমি অল্প বয়সে মুক্তিযুদ্ধে অংশগ্রহণ করেছিলাম। মুক্তিযুদ্ধের অন্যতম মূলনীতি ছিল গণতন্ত্র। কিন্তু আজ দেশে গণতন্ত্র হুমকির সম্মুখীন। এ অবস্থায় নির্বাচনের নামে কোনো তামাশা আমরা মেনে নেবো না। বরিশাল থেকেই গণতন্ত্র রক্ষার আন্দোলনে আমরা ঝাঁপিয়ে পড়বো’, যোগ করেন এই মেয়র প্রাথী।

৭০ থেকে ৮০টি কেন্দ্রে ভোট শুরুই হয়নি, শুরুর আগেই দখলে নিয়ে ইচ্ছামাফিক সিল মারা হয়েছে বলে অভিযোগ করেন মজিবর রহমান। তিনি বলেন, এই বিষয়গুলো বার বার নির্বাচন কমিশনে জানানো হলেও তা আমলে নেওয়া হয়নি। প্রধানমন্ত্রী আশ্বাস দিয়েছিলেন যে তিন সিটি নির্বাচন সুষ্ঠু হবে। সেই আশ্বাসের ওপর ভিত্তি করে আমরা নির্বাচনে অংশ নিয়েছিলাম এবং এখন পর্যন্ত নির্বাচনে ছিলাম। কিন্তু বর্তমানে যে অবস্থা তাতে নির্বাচন করার কোনো মানে হয় না। তাই আমি নির্বাচন বর্জন করলাম। এখান থেকেই আমার কর্মীদের আন্দোলনে ঝাঁপিয়ে পড়ার আহ্বান জানাচ্ছি।

এর আগে সকালেই তার পোলিং এজেন্টদের বিভিন্ন কেন্দ্র থেকে বের করে দেওয়ার অভিযোগ এনেছিলেন বিএনপির এই প্রার্থী। এছাড়া দুপুর পর্যন্ত নির্বাচনে কোনো কেন্দ্রেই প্রকাশ্যে তার ব্যাজ ধারণ করে চলাফেরা করতে পারেননি কোনো কর্মী সমর্থক। বিভিন্ন কেন্দ্রগুলোতে ছিল আওয়ামী লীগ প্রার্থীর কর্মী সমর্থককের ভীড়।

এসবসহ ব্যাপক অনিয়মের অভিযোগ এনে নির্বাচন থেকে সরে দাঁড়ানোর ঘোষণা দিলেন মজিবর রহমান সরোয়ার।

 

কিউএনবি/বিপুল/ ৩০.০৭.১৮/দুপুর ১:৪২