১৯শে সেপ্টেম্বর, ২০১৮ ইং | ৪ঠা আশ্বিন, ১৪২৫ বঙ্গাব্দ | রাত ১০:৫২

আ. লীগ রাজনীতি জানে না, তারা চেতনার ব্যবসা করে

 

ডেস্কনিউজঃ বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য ড. মঈন খান বলেছেন, ‘বাংলাদেশের মানুষ গণতন্ত্র করার জন্য মুক্তিযুদ্ধ করেছিল, স্বৈরাচার করার জন্য মুক্তিযুদ্ধ করে নাই। মুক্তিযুদ্ধের চেতনার কথা মুখে বলে তারা মুক্তিযুদ্ধের চেতনার ব্যবসা করে। তারা গণতন্ত্রকে হত্যা করেছে, মুক্তিযোদ্ধাদের প্রতিনিধি হতে পারে নাই।’

আজ শনিবার বিকেলে নরসিংদীর পলাশ উপজেলার ডাঙ্গা হাসান হাটায় বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার কারামুক্তি ও সুচিকিৎসার দাবিতে আয়োজিত আলোচনা সভা ও দোয়া মাহফিলে প্রধান অতিথির বক্তব্যে ড. মঈন খান এসব কথা বলেন।

সরকার উন্নয়নের নামে ধোকাবাজি করে মেগাপ্রকল্প শুরু করেছে মন্তব্য করে মঈন খান বলেন, ‘আওয়ামী লীগ রাজনীতি করে। কোথায় রাজনীতি করে? তারা রাজনীতি জানে না। রাজনীতি ভুলে গেছে। তারা নেশা করে, তারা মাদকসেবন করে, মাদকের ব্যবসা করে। তারা রাজনীতি করে না। তারা কালো টাকার ব্যবসা করে। আজকে উন্নয়নের নামে ধোকাবাজি করে এই দেশের দরিদ্র মানুষের পকেটের টাকা কেটে, ট্যাক্সের টাকা দিয়ে সরকার লুটপাট করে মেগাপ্রকল্প করছে। এই রাজধানী ঢাকা শহরের মেগা প্রকল্প দিয়ে বাংলাদেশের গ্রামের ১৬ কোটি মানুষের উন্নয়ন কোনোদিন করতে পারে না।’

ড. মঈন খান আরো বলেন, ‘আজকে দেশে যে অনাচার সৃষ্টি হয়েছে, ভয়ভীতি দেখিয়ে মানুষকে গণতন্ত্রের পথ থেকে বিরত রাখা হয়েছে। এখানে কথা বলার স্বাধীনতা নেই। সংবাদপত্রের স্বাধীনতা নেই। এই অবস্থা চলতে দেওয়া যায় না। আমরা গণতন্ত্রের আন্দোলনের মাধ্যমে, শান্তিপূর্ণ প্রক্রিয়ায় এই অবস্থার পরিবর্তন করব। বাংলাদেশের মানুষকে পুলিশের ভয় দেখিয়ে কোনোদিন দাবিয়ে রাখা যায় না। ভবিষ্যতেও কোনোদিন দাবিয়ে রাখা যাবে না। আমরা শান্তিপূর্ণ আন্দোলনে বিশ্বাসী। আমরা শান্তিপূর্ণ রাজনীতিতে বিশ্বাসী।’

যুবদলের সাধারণ সম্পাদক মনিরুজ্জামান মনিরের সভাপতিত্বে এই আলোচনা সভায় বক্তব্য দেন পলাশ উপজেলা বিএনপির সভাপতি এরফান আলী, সাধারণ সম্পাদক সাইফুল হক, পলাশ উপজেলা পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যান আলম মোল্লা প্রমুখ।

 

কিউএনবি/রাজু/২৮শে জুলাই, ২০১৮ ইং/রাত ৮:৫০