২৩শে সেপ্টেম্বর, ২০১৮ ইং | ৮ই আশ্বিন, ১৪২৫ বঙ্গাব্দ | দুপুর ১২:৫২

গৌরনদীতে সন্ত্রাস ও নাশকতা মামলায় বিএনপি ও যুবদলের তিন নেতা গ্রেফতার

 

বিশ্বজিত সরকার বিপ্লব,গৌরনদী (বরিশাল) সংবাদদাতা : বরিশালের গৌরনদী মডেল থানা পুলিশ শুক্রবার রাতে উপজেলার বড় কসবা ও চরগাঁধতলী গ্রাম থেকে গৌরনদী উপজেলা বিএনপি, উপজেলা যুবদল ও পৌর যুবদলের তিন নেতাকে গ্রেফতার করেছে।গ্রেফতারকৃতরা হলেন, গৌরনদী উপজেলা বিএনপির সহসভাপতি আব্দুল মান্নান খান, উপজেলা যুবদলের সাবেক যুগ্ন আহবায়ক মোঃ সরোয়ার মোল্লা, পৌর যুবদলের যুগ্ন আহবায়ক মোঃ বুলবুল সরদার।

গৌরনদী মডেল থানাসুত্রে জানাগেছে, থানা পুলিশ শুক্রবার রাতে বিশেষ অভিযান চালিয়ে উপজেলার চর গাঁধাতলী গ্রাম থেকে গৌরনদী উপজেলা বিএনপির সহসভাপতি আব্দুল মান্নান খান ও উপজেলার বড় কসবা গ্রাম থেকে উপজেলা যুবদলের সাবেক যুগ্ন আহবায়ক মোঃ সরোয়ার মোল্লা, পৌর যুবদলের যুগ্ন আহবায়ক মোঃ বুলবুল সরদারকে গ্রেফতার করে।

গ্রেফতার হওয়া ওই তিন নেতার স্বজনরা জানান, তিন নেতাই তাদের নিজ নিজ ঘরে ঘুমিয়ে ছিলেন।গভীর রাতে পুলিশ সদস্যরা তাদেরকে ঘুম থেকে জাগিয়ে গ্রেফতার করে থানায় নিয়ে যায়।তাদের অভিযোগ বরিশাল সিটি কর্পোরেশনের নির্বাচনে বিএনপি প্রার্থীর পক্ষে প্রচারনায় অংশ নেয়ায় কারনে স্থানীয় আওয়ামীলীগ নেতারা তাদের ওপর ক্ষুব্ধ হয়েছে।

ফলে স্থানীয় আওয়ামীলীগ নেতাদের উন্ধনে থানা পুলিশ তাদেরকে গ্রেফতার করেছে।গ্রেফতারের পর পুলিশ তাদেরকে উপজেলার বড় কসবা গ্রামের একটি পুরোনো সন্ত্রাস ও নাশকতা মামলায় ও উপজেলার চরগাঁধাতলী গ্রামের একটি মন্দিরের কালী প্রতিমা ভাংচুরের মামলার সন্দেহভাজন আসামী করে আদালতে সোপর্দ করেছে।

গ্রেফতার হওয়া বিএনপি নেতাদের স্বজনদের অভিযোগকে ভিত্তিহীন দাবি করে গৌরনদী উপজেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি এইচ.এম জয়নাল আবেদীন বলেন, তাদের গ্রেফতারের সাথে বরিশাল সিটি কর্পোরেশন নির্বাচনের কোন যোগসুত্র নেই।

আমার জানামতে তাদের বিরুদ্ধে থানায় মামলা থাকায় পুলিশ সেই পুরোনো মামলাতেই তাদেরকে গ্রেফতার করেছে।গৌরনদী মডেল থানার ওসি (তদন্ত) মোঃ আফজাল হোসেন জানান, গ্রেফতারকৃত বিএনপি নেতাদের স্বজনদের অভিযোগ সত্য নয়।পুরোনো মামলার সন্দিগ্ধ আসামী হিসেবে মামলার আইও তাদেরকে গ্রেফতার করেছে।

 

 

 

কিউএনবি/সাজু/২৮শে জুলাই, ২০১৮ ইং/রাত ৮:১৮