১৭ই নভেম্বর, ২০১৮ ইং | ৩রা অগ্রহায়ণ, ১৪২৫ বঙ্গাব্দ | সকাল ৮:৩১

লেঙ্গুরায় ঐতিহাসিক নাজিরপুর যুদ্ধ দিবস পালিত

 

তোবারক হোসেন খোকন,দুর্গাপুর(নেত্রকোনা)প্রতিনিধি : নেত্রকোনার কলমাকান্দা উপজেলার লেঙ্গুরা ইউনিয়নে প্রতিবছরের মতো এবারও ২৬জুলাই যথাযোগ্য মর্যাদায় ঐতিহাসিক নাজিরপুর যুদ্ধ দিবস পালিত হয়েছে।

১৯৭১ সালের এই দিনে টাইগার বাহিনীর বীরমুক্তিযোদ্ধা নাজমুল হোসেন তারা‘র নের্তৃত্বে কলমাকান্দা উপজেলার নাজিরপুরে পাকসেনাদের সঙ্গে সম্মুখ যুদ্ধে ৭জন বীর মুক্তিযোদ্ধা শহীদ হয়েছেন।ঐদিন শহীদ মুক্তিযোদ্ধাদের লাশ বহন করে লেংগুড়া ইউনিয়নের ফুলবাড়ী সীমান্তে ১১৭২নং পিলার সংলগ্নে সমাহিত করা হয়।

সমাহিত যোদ্ধারা হলেন ডা.আব্দুল আজিজ (নেত্রকোণা), মো.ফজলুল হক (নেত্রকোণা), মোঃ ইয়ার মাহমুদ (মুক্তাগাছা), ভবতোষ চন্দ্র দাস(মুক্তাগাছা), মোঃ নুরজ্জরুমান (মুক্তাগাছা), দ্বিজেন্দ্র চন্দ্র বিশ্বাস (মুক্তাগাছা) ও মোঃ জামাল উদ্দিন (জামালপুর)। প্রতি বছর জেলা, উপজেলা ও উপজেলা মুক্তিযোদ্ধা সংসদের উদ্যোগে নানা আয়োজনের মধ্য দিয়ে দিবসটি পালিত হয়।

এ উপলক্ষে নাজিরপুর স্মৃতি সৌধ ও ফুলবাড়ী শহীদ মুক্তিযোদ্ধাদের সমাধিতে পুষ্পস্তবক অর্পণ শেষে দুপুরে লেঙ্গুরা উচ্চ বিদ্যালয় মাঠে নেত্রকোণা-ময়মনসিংহ-শেরপুর-জামালপুর ও সুনামগঞ্জ জেলার বিপুল সংখ্যক মুক্তিযোদ্ধা, রাজনীতিক, শহীদ পরিবারের সদস্য, জনপ্রতিনিধি, শিক্ষক শিক্ষার্থী, সাংবাদিক সহ নানা শ্রেণী পেশার মানুষ অংশগ্রহনে কলমাকান্দা ইউএনও মো. আরিফুজ্জামান এর সঞ্চালনায় ভারপ্রাপ্ত জেলা প্রশাসক মো. আরিফুল ইসলাম এর সভাপতিত্বে আলোচনা সভায় প্রধান অতিথি ছিলেন, স্থানীয় এমপি ছবি বিশ্বাস।

বিশেষ অতিথি হিসেবে আলোচনা করেন জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান প্রশান্ত রায়, নেত্রকোনা পৌরসভা মেয়র আলহাজ্ব নজরুল ইসলাম খান, জেলা পুলিশ সুপার জয়দেব কুমার চৌধুরী, বিজিবি ১১ লে: কর্নেল সাইদ হাসান, সাবেক এমপি আশ্রাব আলী খান খসরু, কলমাকান্দা উপজেলা আ‘লীগ সভাপতি চন্দন বিশ্বাস, কলমাকান্দা উপজেলা চেয়ারম্যান ফখরুল ইসলাম ফিরোজ প্রমুখ।

বক্তরা বলেন, ১৯৭১ সালে নাজিরপুর ব্রীজের পাশে সন্মুখ যুদ্ধে শহীদ হন বৃহত্তর ময়মনসিংহের সাত বীর মুক্তিযোদ্ধা।মহান মুক্তিযুদ্ধে নিহত বীর শহীদদের লেঙ্গুরা সীমান্তের ১১৭২ নং পিলারের কাছে সমাহিত করা হয়। আর এই সমাধিস্থলেই প্রতিবছর ২৬ জুলাই পালন করা হয় নাজিরপুর দিবস।

মুক্তিযুদ্ধের চেতনায় বর্তমান সরকার শত প্রতিকুলতা সত্বেও দেশকে এগিয়ে নিয়ে মুক্তিযোদ্ধাদের কল্যানে কাজ করছেন সে জন্য এ আলোচনা মঞ্চ থেকে ধন্যবাদ জানাই।সেই সাথে আগামী জাতীয় নির্বাচনে বর্তমান সরকারকে ক্ষমতায় এনে দেশের উন্নয়নের ধারাকে অব্যাহত রাখতে আহবান জানান।

 

 

 

 

কিউএনবি/সাজু/২৬শে জুলাই, ২০১৮ ইং/সন্ধ্যা ৭:৫০