২৫শে এপ্রিল, ২০১৯ ইং | ১২ই বৈশাখ, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ | সন্ধ্যা ৬:২৫

শরীয়তপুর জেলা পরিষদের চেয়ারম্যানের গাড়ীর ধাক্কায় মাদারীপুরে শ্রমিক নিহত

 

আব্দুল্লাহ আল মামুন,মাদারীপুর প্রতিনিধি : মাদারীপুর সদর উপজেলার মস্তফাপুর এলাকায় মাদারীপুর-শরিয়তপুর আঞ্চলিক সড়কে শরিয়তপুর জেলা পরিষদ চেয়ারম্যানের পাজেরো জীপের ধাক্কায় মো. মওলা হাওলাদার(৪৫) নামে এক শ্রমিক নিহত হয়েছে।

সড়ক দৃর্ঘটনাটি ঘটেছে মস্তফাপুর ব্রাক অফিসের সামনে সকাল ১১টায় তবে তখন সেই গুরুত্বর হওয়ায় ফরিদপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয় এবং বিকাল ৪টার দিকে চিকিৎসাধীন অবস্থায় সেখানেই তার মৃত্যু হয়েছে বলে পরিবার সুত্রে জানা যায়।

পুলিশ ও স্থানীয় সুত্রে জানা যায়, নিহত ব্যাক্তি ও তার চাচাতো ভাইকে নিয়ে মস্তফাপুর থেকে নিজ মোটরসাইকেল যোগে মাদারীপুর যাচ্ছিলো ইতিমধ্যে পিছন থেকে আসা একটি মাক্রোবাস (শরিয়তপুর-ঘ-১১-০০২৩) স্বজোরে ধাক্কা দেয়।

এতে ঘটনাস্থলে মটরসাইকেল থেকে মওলা হাওলাদার ছিটকে পরে যায় এবং গুরুত্বর আহত হলে তাকে প্রথমে মাদারীপুর সদর হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয় এবং প্রাথমিক চিকিৎসা দেয়ার পর তাকে ফরিদপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে রেফার করা হয়অ।সেখানে চিকিৎসাধীন অবস্থায় বিকালে তার মৃত্যু হয়।

এতে পরিবার সহ এলাকাবাসীর মাঝে শোকের ছায়া নেমে এসেছে। তাছাড়া শরিয়তপুর জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান ও শরিয়তপুর জেলা আওয়ামীলীগ সভাপতি গাড়ী হওয়া সত্তে একথা মাদারীপুর বা শরিয়তপুর প্রশাসনের কেউ স্বীকার করছে না।

মাদারীপুর শ্রমিক ইউনিয়নের ভাইস প্রেসিডেন্ট শরীফ মো: ফাইজুল কবীর বলেন,ঘটনার পর বিকাল ৪টা থেকে সাড়ে ৪টা পর্যন্ত ঢাকা- বরিশাল মহাসড়কে স্থানীয় জনতা ১ ঘন্টা সড়ক অবরোধ করলেও পুলিশ সুপারের আশ্বাসের প্রেক্ষিতে অবরোধ প্রত্যাহার হয়।মাদারীপুর সদর থানা ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা(ওসি) মো. কামরুল হাসান ঘটনা সত্যতা স্বীকার করে বলেন আমরা ঘটনাস্থল থেকে গাড়ীটি আটক করে বর্তমান এনডিসির কাছে হস্তান্তর করেছি।যদি নিহতের পরিবার মামলা করে তাহলে আইনগত ব্যবস্থা নেব।

মাদারীপুর জেলা প্রশাসক কার্যালয় (এনডিসি) আল মামুন জানান, আমরা ঘটনাটির জন্য মর্মাহত,তবে গাড়ীতে কোন অফিসার ছিল না।আর আমাদের জেলা প্রশাসনের কারো গাড়ী না, তবে শরিয়তপুর জেলা পরিষদের গাড়ী হতে পারে।আমরা ঐ পরিবারটিকে সব ধরনের সহযোগীতা করার আশ্বাস দিচ্ছি।

 

 

 

 

কিউএনবি/সাজু/২৩শে জুলাই, ২০১৮ ইং/সন্ধ্যা ৬:৪২