১৯শে সেপ্টেম্বর, ২০১৮ ইং | ৪ঠা আশ্বিন, ১৪২৫ বঙ্গাব্দ | রাত ১:৩৮

নওগাঁয় মৌসুমীর একসঙ্গে ৬ মৃত সন্তান প্রসব

 

তানভীর চৌধুরী, নওগাঁ জেলা প্রতিনিধি : নওগাঁয় সদর হাসপাতালে শনিবার সকাল আনুঃ সাড়ে ১০টার দিকে প্রসবের আগেই মারা গেল মৌসুমীর ৬ সন্তান।

মৌসুমী আক্তার (২২) নওগাঁ সদর উপজেলার পাটালির মোড় এলাকার রানার স্ত্রী। ঐদিন মৃত অবস্থায় একে একে তিনি প্রসব করেন ৬ সন্তান। ছয়টির মধ্যে তিনটি মেয়ে ও তিনটি ছেলে সন্তান।

পারিবারিক সূত্রে জানাযায়, প্রায় আট বছর আগে রানার সাথে বিয়ে হয় মৌসুমীর। কিন্তু তাদের কোনো সন্তান ছিল না। দীর্ঘ সময় পর মৌসুমী আক্তার গর্ভবতী হন। গত এক মাস আগে সদর হাসপাতালে আল্ট্রাসনোগ্রাম করে জানাতে পারেন তার গর্ভে ছয়টি বাচ্চা আছে।এর পর থেকে সে চিকিৎসকের পরামর্শ অনুযায়ী চলতে থাকে।

শুক্রবার রাতে খাবার খেয়ে ঘুমিয়ে পড়ে মৌসুমী। শনিবার ভোর থেকে পেটে ব্যথা শুরু হয়। এরপর বাড়িতেই অকাল গর্ভপাতে একটি মৃত সন্তান প্রসব হয় এবং পরে অবস্থা খারাপের দিকে গেলে তাকে হাসপাতালে নেওয়া হয়। সেখানে চিকিৎসকের সহায়তায় নরমালি আরও ৫টি বাচ্চা প্রসব হয়। কিন্তু ৫টি বাচ্চাই মৃত।

সদর হাসপাতালের তত্ত্বাবধায়ক ডাঃ রওশন আরা ও সিনিয়র স্টাফ নার্স ফাহানা সওদাগর জানান, এর আগেও মৌসুমী আমাদের হাসপাতালে এসে চেকআপ করিয়ে গেছেন।শনিবার ভোরে তাকে অসুস্থ অবস্থায় হাসপাতালে আনা হয়। মাত্র ৪ মাস আগে বাচ্চা গুলো গর্ভে আসে।আর ৪ মাসের কোনো বাচ্চাকে নিরাপদে পৃথিবীতে আনা কঠিন।বাচ্চা গুলোর শরীরের আকার ঠিকমত হয়নি বলেও জানান তারা।তবে শিগগির হাসপাতালে নিয়ে আসায় মায়ের কোনো ক্ষতি হয়নি।

এদিকে, বাচ্চা প্রসবের খবর ছড়িয়ে পড়ায় হাসপাতালেই উৎসুক হাজারও নারী-পুরুষের ভিড় জমতে থাকে। এ ধরনের ঘটনা আগে কেউ দেখেননি বলেও জানান উপস্থিত সাধারণ মানুষ।

 

 

 

কিউএনবি/সাজু/২১শ জুলাই,২০১৮ ইং/বিকাল ৫:৪১