১৩ই নভেম্বর, ২০১৮ ইং | ২৯শে কার্তিক, ১৪২৫ বঙ্গাব্দ | রাত ১০:১৩

৩৯৯, ‘আক্ষেপ’ বাড়াল পাকিস্তানের!

নিউজ ডেস্কঃ  বুলাওয়েতে সিরিজের চতুর্থ ওয়ানডে ম্যাচের প্রথম ইনিংসে জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে ৩৯৯ রান করেছে পাকিস্তান। আর এতে ১ রানের আক্ষেপ রয়ে গেল সফরকারীদের। মাত্র ১ রানের জন্য ওয়ানডে ক্রিকেটের ইনিংসে ৪০০ রানের ক্লাবে প্রবেশ করা হল না। তবে এ ম্যাচে জিততে হলে ৪০০ রান করতে হবে জিম্বাবুয়েকে।

যদিও পাকিস্তানের ওয়ানডে ক্রিকেটের ইতিহাসের এটি সর্বোচ্চ রানের স্কোর। এর আগে ২০১০ সালে বাংলাদেশের বিপক্ষে ৩৮৫ রানের স্কোরটি ছিল সর্বোচ্চ।

এদিন উদ্বোধনী ব্যাটসম্যান ফখর জামান ও ইমাম উল হকের ৩০৪ রানের জুটিতে ভর করে এ বিশাল রানের পাহাড় দাঁড় করায় পাকিস্তান। আর ওয়ানডে ক্রিকেটে প্রথমবারের মতো ডাবল সেঞ্চুরির দেখা পান পাকিস্তানের উদ্বোধনী ব্যাটসম্যান ফখর জামান। মাত্র ১৪৮ বলে ২৪টি চার ও ৫টি ছক্কার মারে তিনি ডাবল সেঞ্চুরি করেন। অপরাজিত থাকনে ২১০ রানে। ফলে ওয়ানডে ক্রিকেটের ইতিহাসে প্রথম কোনও পাকিস্তানি ব্যাটসম্যান ডাবল সেঞ্চুরির রেকর্ড গড়লেন।

ওয়ানডে ক্রিকেটর ইতিহাসে এটি ৮ম ডাবল সেঞ্চুরি। এর আগে পাঁচজন ব্যাটসম্যান ডাবল সেঞ্চুরি করতে পেরেছেন। তারা হলেন রোহিত শর্মা, শচীন টেন্ডুলকার, ক্রিস গেইল, মার্টিন গাপটিল। এর মধ্যে ভারতের রোহিত শর্মা সর্বোচ্চ ৩ বার ডাবল সেঞ্চুরি করেন।

এদিকে একই দিনে আরেকটি রেকর্ড গড়েন ফখর জামান ও ইমাম উল হক।ওয়ানডে ক্রিকেটের ইতিহাসে সর্বোচ্চ রানের পার্টনারশিপ গড়ে রেকর্ড গড়েছেন পাকিস্তানের দুই ব্যাটসম্যান। জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে উদ্বোধনী জুটিতে ৩০৪ রান সংগ্রহ করে এ রেকর্ড গড়েন তারা। ফখর জামান ১৬৯ ও ইমাম উল হকের ১১৩ রান করেন। ৪২তম ওভারের শেষ বলে উড়িয়ে মারতে গিয়ে ১১৩ রানে  ইমাম উল হক আউট হলে জুটি ভাঙে। তবে ফখর জামান এখনও অপরাজিত ১৭৯ রানে। এছাড়া এদিন আসিফ আলিও করেন হাফ সেঞ্চুরি।

কিউএনবি/নিল/ ২০ জুলাই, ২০১৮ ইং/১৯ঃ১৭