ব্রেকিং নিউজ
২৬শে সেপ্টেম্বর, ২০১৮ ইং | ১১ই আশ্বিন, ১৪২৫ বঙ্গাব্দ | সন্ধ্যা ৭:১০

এডিপি বাস্তবায়ন ৯৩.৭১ শতাংশ

 

বিদায়ী অর্থবছরে বার্ষিক উন্নয়ন কর্মসূচি (এডিপি) ৯৩ দশমিক ৭১ শতাংশ বাস্তবায়ন হয়েছে। তবে এটি মূল এডিপি নয়, সংশোধিত এডিপির বাস্তবায়ন হয়েছে। টাকার অঙ্কে বিদায়ী অর্থবছরে ১ লাখ ৪৭ হাজার ৭০৩ কোটি টাকা।মঙ্গলবার জাতীয় অর্থনৈতিক পরিষদের নির্বাহী কমিটির (একনেক) সভা শেষে পরিকল্পনামন্ত্রী আ হ ম মুস্তফা কামাল এ তথ্য দেন। পরিকল্পনা কমিশনের এনইসি সম্মেলন কক্ষে একনেক সভা অনুষ্ঠিত হয়।উল্লেখ্য, বিদায়ী অর্থবছরে স্বায়ত্তশাসিত প্রতিষ্ঠানগুলোর ব্যয়সহ মূল এডিপির আকার ছিল ১ লাখ ৬৪ হাজার ৫ কোটি টাকা। পরে তা কমিয়ে ১ লাখ ৫৭ হাজার ৫৯৪ কোটি টাকা করা হয়েছে।

এডিপি পুরো বাস্তবায়ন না হওয়ার কারণ প্রশাসনিক ও প্রাতিষ্ঠানিক দক্ষতা না থাকা। এ ছাড়া প্রকল্প বাস্তবায়নের প্রাক-প্রস্তুতি ও পরিকল্পনা নেই বলেই এমন হচ্ছে বলে মনে করেন বিশেষজ্ঞরা।পরিকল্পনামন্ত্রী আ হ ম মুস্তফা কামাল সাংবাদিকদের বলেন, এবার ৯৩ শতাংশের বেশি এডিপি বাস্তবায়ন হয়েছে। সামনে আরও বেশি বাস্তবায়ন হবে। তিনি জানান, গতবারের চেয়ে এবার ৪০ হাজার কোটি টাকা বেশি খরচ হয়েছে। এই প্রবণতা যদি চলতি অর্থবছরে ধরে রাখা যায়, তবে এবার এডিপি পুরোপুরি বাস্তবায়ন হবে।

উল্লেখ্য, চলতি অর্থবছরে ১ লাখ ৮১ হাজার কোটি টাকার এডিপি নেওয়া হয়েছে। এই এডিপিতে ১ হাজার ৪৫২টি প্রকল্প আছে। আগামী অর্থবছরে ৪৪৬টি প্রকল্প শেষ করার জন্য নির্ধারণ করা হয়েছে। এ ছাড়া এডিপিতে বরাদ্দহীন ও অননুমোদিত প্রকল্প আছে ১ হাজার ৩৩৮টি। এই প্রকল্পগুলো থেকে সারা বছর একনেকে পাস করা হবে।

 

 

কিউএনবি/অদ্রি/০৪.০৭.২০১৮/ দুপুর ১.০৫