১৮ই নভেম্বর, ২০১৮ ইং | ৪ঠা অগ্রহায়ণ, ১৪২৫ বঙ্গাব্দ | বিকাল ৪:১৩

গোপালগঞ্জের মুকসুদপুরে রাস্তা বন্ধ করে চাঁদা দাবী করায় আদালতে মামলা দায়ের : সংবাদ সম্মেলন

এম শিমুল খান,নিজস্ব প্রতিনিধি, গোপালগঞ্জ : গোপালগঞ্জ জেলার মুকসুদপুর উপজেলাধীন দক্ষিন চন্ডিবরদী গ্রামে বাড়ীর জমি কিনে হয়রানী ও চাঁদাবাজির শিকার হচ্ছেন আজিজুর রহমান সেলিম শরীফ নামে এক ব্যাক্তি। প্রতিবাদে মামলা দায়ের ও সংবাদ সম্মেলন করেছেন ভূক্তভোগী ওই পরিবারটি।

মঙ্গলবার বেলা সাড়ে ১১ টার সময় মুকসুদপুর প্রেসক্লাবে সংবাদ সম্মেলন করে লিখিত বক্তব্যে উপজেলার বেজড়া গ্রামের আজিজুর রহমান সেলিম বলেন, চন্ডিবর্দী গ্রামের আ: ছাত্তার পলাশ তার পিতা সেকেন্দার মাস্টারের নিকট থেকে ৫৮নং চন্ডিবরদী মৌজার ৩৩২, ৩৩০, ৩২৭ ও ৩২৯ নং দাগের মধ্যে ১.৭০ শতাংশ জমির উপর নির্মানাধীন তিন তলা ফাউন্ডেশনসহ একটি জমি ২০১৪ সালে সাফ কবলা মূলে তিনি তার স্ত্রী মোসা: সাবিনা ইয়াসমিন ও দুই সন্তানের নামে খরিদ করেন।

উক্ত জায়গায় যাতায়াতের জন্য আ: সাত্তার পলাশ এবং সারমিন সুলতানা, স্বামীঃ মোঃ মাহাবুবুর রহমান নির্মিত দ্বি-তল ভবনের মাঝখান দিয়ে চলাচলের জন্য পূর্ব থেকেই একটি রাস্তা ছিল। জমি খরিদ করে উক্ত রাস্তা দিয়ে চলাচল করতে গেলে শারমিন সুলতানা তার স্বামী মাহবুবুর রহমান এবং একই গ্রামের রিপন সরদার তাকে চলাচলে বাধা প্রদান করেন।

এ বিষয়ে তারা গোপালগঞ্জ বিজ্ঞ আদালতে ১৪৪ ধারায় একটি মামলা করে। এর প্রেক্ষিতে একজন ম্যাজিষ্ট্রেট ঘটনাস্থলে গিয়ে স্থানীয় প্রশাসনিক কর্মকর্তাদের নিয়ে তদন্ত করে আদালতে প্রতিবেদন দেন। প্রতিবেশির যাতায়াতের জন্য রাস্তাটি প্রয়োজন বিবেচনা করে বিজ্ঞ আদালত মামলাটি খারিজ করে দেন।

সংবাদ সম্মেলনে আজিজুর রহমান সেলিম শরীফ আরো জানান, মামলা খারিজের পরে মুকসুদপুর উপজেলা যুবদলের প্রভাবশালী নেতা রিপন সরদার ও অন্যান্য ব্যক্তিগণ রাস্তায় পাকা দেয়াল গেঁথে যাতায়াতের রাস্তা সম্পুর্ন বন্ধ করে দেয় এবং তার নিকট ৫ লক্ষ টাকা চাঁদা দাবী করে। গত ১৫ মে তারিখে মোস্তাফিজুর রহমান রাজু সরদার, আহাদ আলী মোল্যাসহ আরো কয়েকজনের সামনে সেলিম শরীফ রিপন সরদারের নিকট এক লক্ষ টাকা নগদ দেন। উক্ত টাকা নিয়ে তারা আরো টাকা দাবী করলে সেলিম শরীফ অপরাগতা প্রকাশ করে ক্ষমা প্রার্থনা করেন।

এতে তারা ক্ষিপ্ত হয়ে তাকে প্রাণনাশ সহ বিভিন্ন হুমকী দিলে তিনি বাদী হয়ে বিজ্ঞ আদালতে ৩৮৫/৩৮৬/৫০৬(২)/৩৪ ধারায় আর একটি মামলা দায়ের করেন। যা গত ১৪/০৬/২০১৮ইং তারিখে মুকসুদপুর থানায় এফ আই আর ভূক্ত হয়। গত ২৪/০৬/২০১৮ তারিখে আসামীগণ আদালত থেকে জামিনে এসেই সেলিম শরীফকে বিভিন্ন মাধ্যমে আবারো প্রাণনাশ ও মিথ্যা মামলা দিয়ে হয়রানী করার হুমকি দিচ্ছেন বলে তিনি জানান।

বর্তমানে তিনি তার পরিবার পরিজনসহ মারাত্মক ভীতির মধ্যে রয়েছেন বলে উপস্থিত সাংবাদিকদের কে অবহিত করেন। এ বিষয়ে ভুক্তভোগী সেলিম শরীফ সকলের সহযোগিতা কামনা করেছেন।

কিউএনবি/রেশমা/২৬শে জুন, ২০১৮ ইং/বিকাল ৫:১৯