২৩শে সেপ্টেম্বর, ২০১৮ ইং | ৮ই আশ্বিন, ১৪২৫ বঙ্গাব্দ | সকাল ১০:৫২

১ জনের পর ২ বখাটের পা ধরে গণধর্ষণ থেকে বাঁচল তরুণী!

 

নারায়ণগঞ্জের ফতুল্লা নন্দলালপুর এলাকায় পথরোধ করে পরিত্যক্ত একটি বাড়িতে নিয়ে গিয়ে এক তরুণীকে ধর্ষণ করেছে স্থানীয় বখাটেরা। এ সময় যদিও ওই নির্যাতিতা তরুণী আরো দুই বখাটের পায়ে ধরে ভাই ডেকে গণধর্ষণ থেকে রক্ষা পান।মঙ্গলবার (১২ জুন) রাতে এ ঘটনা ঘটেছে।এই ঘটনায় বুধবার (১৩ জুন) সকাল থেকে দুপুর পর্যন্ত অভিযান চালিয়ে পুলিশ ধর্ষকসহ দুই জনকে গ্রেফতার করতে সক্ষম হয়েছে।

গ্রেফতারকৃতরা হলো- ফতুল্লার নন্দলালপুর ভাবী বাজার এলাকার ধর্ষক স্বাধীন আহমেদ (২৫) ও তার বন্ধু তানভীর আহমেদ (২৫)।গ্রেফতারের পর তানভীর আহমেদকে থানায় নেয়ার পথিমধ্যে সে গণমাধ্যমকর্মীদের জানান, সম্রাট নামে এক যুবক তার তরুণী বান্ধবীকে নিয়ে ফতুল্লার নন্দলালপুর এলাকায় রাস্তা দিয়ে ঘোড়াফেরা করছিল। এসময় তাদের দু’জনকে পথরোধ করে পরিত্যক্ত একটি বাড়িতে নিয়ে যাওয়া হয়। সেখানে নিয়ে সম্রাটকে বাইরে আটকে রেখে স্বাধীন ওই তরুণীকে প্রথমে ধর্ষণ করে।

তানভীর আহমেদ আরো বলে, ‘ স্বাধীনের পরে আমি ধর্ষণ করতে ওই কিশোরীর কক্ষে প্রবেশ করলে সে আমার পায়ে ধরে কান্নাকাটি করে ভাই বলে ডাকে। এতে কিশোরীকে গালাগালি করে বের হয়ে আসি। একই কারণে আমাদের বন্ধু শান্তও কিশোরীকে ধর্ষণ করেনি।’এ বিষয়ে ফতুল্লা মডেল থানার পরিদর্শক (তদন্ত) শাহজালাল জানান, নির্যাতিতা তরুণীর অভিযোগ পেয়ে ধর্ষকসহ আরো দুজনকে গ্রেফতার করা হয়েছে। প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে ধর্ষণের কথা স্বীকার করেছে তারা।

তিনি আরো বলেন, এ ঘটনায় আরো যারা জড়িত রয়েছে তাদেরও গ্রেফতারের চেষ্টা চলছে।

 

কিউএনবি/অদ্রি আহমেদ/ ১৪.০৬.২০১৮/ সকাল ১২.৩০