২২শে সেপ্টেম্বর, ২০১৮ ইং | ৭ই আশ্বিন, ১৪২৫ বঙ্গাব্দ | সকাল ৯:৪০

ভোলার দৌলতখানে পৌর কাউন্সিলর’র বাসায় হামলা-ভাংচুর ও লুটপাট গ্রেফতার-১

 

দৌলতখান প্রতিনিধি॥ ভোলার দৌলতখান পৌরসভার ৬ নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর ও প্যানেল মেয়র মোঃ মাকসুদুর রহমান বাহারের বাসায় মঙ্গলবার বিকাল ৫ টায় একই ওয়ার্ডের আরমান ও মমিন গংরা হামলা চালিয়ে ধারালো অশ্র দিয়ে মুল ফটক ও বৈঠকখানা কুপিয়ে ভাংচুর করে ঘরে প্রবেশ করে নগদ অর্থ সহ স্বর্ণালংকার লুট করে নিয়ে যায় । লুটপাট করে যাওয়ার সময় পার্শবর্তী জাহাঙ্গীর , ফারুক ও ইসরাফিলের বসতঘরে ব্যাপক ভাংচুর চালায়।

এ ব্যাপারে মাকসুদুর রহমানের পিতা আবুল কালাম আজাদ বাদী হয়ে ৪ জনকে জ্ঞাত ও ৫-৬ অজ্ঞাত আসামী করে দৌলতখান থাকায় একটি অভিযোগ দায়ের করেছে। আসামীরা হচ্ছে আরমান হোসেন(৩৬), মনির হোসেন মমিন (৩০), জহির (৩০), মমতাজ বেগম (৫৬)।

জানা যায়, মোঃ আরমান হোসেন ও মোঃ মনির হোসেন মনির দীর্ঘদিন যাবৎ পৌর কাউন্সিলর বাহারের কাছে চাঁদা দাবি করে আসছিলো । চাঁদা প্রদানে অসম্মতি জানালে আরমান হোসেন, মনির হোসেন মমিন ও জহির গত মঙ্গলবার বিকাল ৫ টায় তার বাড়িতে ঢোকার চেষ্টা করে। এসময় পৌর কাউন্সিলর মাকসুদুর রহমান এগিয়ে এলে আরমান চাইনিজ কুড়াল দিয়ে তার মাথায় আঘাত করার চেষ্টা করে।

এসময় জীবন বাঁচাতে সে বাসার পেছনের দরজা দিয়ে ছটকে পড়ে। পরে সন্ত্রাসীরা বাসায় প্রবেশ করে নগদ ৫৬ হাজার টাকাও সাড়ে ৪ ভরি স্বর্ণালংকর লুট করে পালিয়ে যায়। পরে স্থানীয় জনতা ঘটনাস্থল থেকে আরমানকে আটক করে পুলিশে সোপর্দ করে।

এ ব্যাপরে দৌলখান থানা অফিসার ইনচার্জএনায়েত হোসেন জানান, পৌর কাউন্সিলর মাকসুদুর রহমান এর বাবা বাদী হয়ে থানায় একটি অভিযোগ দায়ের করেছে। পুলিশ আরমানকে ঘটনাস্থল থেকে আটক করেছে। খুব শীগ্রই বাকিদের আটক করা হবে।

 

কিউএনবি/ অদ্রি/ ৩০.০৫.১৮/ রাত ১১.৩৭