১৮ই নভেম্বর, ২০১৮ ইং | ৪ঠা অগ্রহায়ণ, ১৪২৫ বঙ্গাব্দ | সকাল ৭:৪২

তৃষা চামেলি’র কবিতাঃ তুমি হৃদয় ছুঁলেই

 

 

তুমি হৃদয় ছুঁলেই 

==========================================================

নদীটা ওখানেই থেমে থাকে অনন্তকাল
ঠিক সন্ধ্যেটাও
তুমি আলতারাঙা পায়ে বোধের ঘুঙুর বাজিয়ে না জানি কবে আসবে অমাবস্যা রাতে, হাতে নিয়ে
অশোকফুলের মতো গুচ্ছ গুচ্ছ চাঁদ
তুমি না এলে অলস এ রাত্রির ঘুম ভাঙবেনা
এ গ্রামে ভোরের পাখিরা গাইবেনা প্রভাত ভৈরবী

তুমি তো লীলাবতি নদীর মতন
অঙ্গতরঙ্গে রূপকথার জীবনবর্ধক যাদুজল
চোখের ঘনঘটায় কৃষ্ণগহবরের অমোঘ টান
যেন ওখানেই অনন্ত তারকা জীবনের পরিসীমা আঁকা

তোমার ঘুমঘুম চোখের কুয়াশা সরালেই
ফোটে আমার প্রাণের সূর্যফুল
তারপর হঠাৎই কখন জানি জ্বালিয়ে দাও
রোদভরা দুপুরের সঙ্গম আগুন
আমার অপরিপক্ব বোধের নিয়েন
সেই তুমুল আগুনে পুড়ে হয়ে ওঠে
অচেনা নক্ষত্রের মতো ডগমগে লাল
আমি যেন নিত্য শানিত হই
তোমার কামারশালার ঝলসিত পিটুনিতে

জানি তোমাকে ছুঁয়ে দিলেই বিশ্বময় বিস্ফোরনে চুরবেচুর হবে
মহাবিশ্বের সকল ছায়াপথের ব্যাপকতা

তাই তো নিটোল যত্নে গুছিয়ে রাখি তোমাকে
ছোট্ট এ হৃদয়ের সীমাহীন প্রেমপথে
কী যে আগলে রাখা! 
তবু ছুঁ’তে পারিনা যেন কিছুতেই
জানি তুমিই এ হৃদয় ছুঁ’লে ফুটবে
পৃথিবীময় অনন্ত বৈশাখি উৎসব।

 

কিউএনবি/ অদ্রি/২৩.০৫.১৮/রাত ২:১৯