১৯শে ডিসেম্বর, ২০১৮ ইং | ৫ই পৌষ, ১৪২৫ বঙ্গাব্দ | সকাল ৭:২৭

সরিষাবাড়ীতে অনিয়মের অভিযোগে স্বাস্থ্য কর্মকর্তা লাঞ্ছিত

 

জাকারিয়া জাহাঙ্গীর,সরিষাবাড়ী (জামালপুর) প্রতিনিধি : জামালপুরের সরিষাবাড়ী উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা কাজী এনামুল হকের বিরুদ্ধে নানা অনিয়ম-দুর্নীতি, উৎকোচ বানিজ্য ও স্বেচ্ছাচারিতার অভিযোগ ওঠেছে। এ ঘটনার প্রতিবাদে রোববার সকালে কার্যালয়ের কর্মচারীরা তাকে লাঞ্ছিত করেছে। পরে পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণ করে।

উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স সুত্র জানায়, স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা কাজী এনামুল হক যোগদানের পর থেকেই বিভিন্ন অনিয়মের সাথে জড়িত। তিনি নিয়মিত অফিসে না এলেও সব কাজেই ফাইল আটকে উৎকোচ আদায় করেন।

এ ঘটনার জের ধরে রোববার সকালে কর্মচারী ও প্রশিক্ষণার্থীরা বিভিন্ন বিষয়ে জানতে যান। এ সময় তিনি ক্ষিপ্ত হয়ে তাদের ওপর চড়াও হন। পরে কার্যালয়ের কর্মচারীরা ক্ষুব্ধ হয়ে তাকে কার্যালয়ে প্রায় এক ঘন্টা আটকে রাখেন। ঘটনাস্থলে পুলিশ গিয়ে তাকে উদ্ধার করে।

পরিসংখ্যান বিভাগের হাবিব ও অ্যাম্বোলেন্স চালক জোবায়েরসহ কয়েকজন অভিযোগ করেন, স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা নিয়মিত অফিসে না এলেও সব কাজেই ফাইল আটকে উৎকোচ আদায় করেন। কমিউনিটি ক্লিনিকভিত্তিক সদস্য জনপ্রতিনিধিদের প্রশিক্ষণ দিতে তাঁর পছন্দের লোকদের নির্বাচিত করেন।

প্রতিজনের কাছ থেকে উৎকোচ নিয়ে তালিকাভূক্তদের বাদ দিয়ে পুণরায় নতুন লোক নেন। এমএলএসএস চান মিয়া জানান, হাসপাতালের জেনারেটর খরচের ফাইল স্বাক্ষর করতে স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা তার কাছ থেকে ২০ হাজার টাকা উৎকোচ দাবি করেন। এ সব ঘটনা তার কাছে জানতে গেলে তিনি ক্ষিপ্ত হয়ে মারতে আসেন। এতে আমরা সবাই প্রতিবাদ করলে উত্তেজনা বিরাজ করে।

এ ব্যাপারে উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা কাজী এনামুল হক অভিযোগ অস্বীকার করে বলেন, আমি কোনো কিছুর হিসাব চাইতে গেলে তারা মিথ্যা অভিযোগ তুলে।

 

 

 

 

কিউএনবি/সাজু/২০শে মে, ২০১৮ ইং/রাত ৮:৫৪