২২শে সেপ্টেম্বর, ২০১৮ ইং | ৭ই আশ্বিন, ১৪২৫ বঙ্গাব্দ | বিকাল ৫:১২

বিনামূল্যে রিকশা পেয়ে মুখে হাসি

 

সারাদেশঃ মালেক গাজীর পরিবারের সদস্য সংখ্যা ছয়। পিঠা বিক্রি করে সংসার চালাতেন তিনি। কিন্তু সব মৌসুমে তো আর পিঠা বিক্রি হয় না। তাই অভাব অনটনের মধ্যে সংসার চালাতে হিমশিম খাচ্ছিলেন তিনি।তবে মালেক গাজীর মুখে এবার হাসি ফুটেছে। আয়ের পথ খুঁজে পেয়েছেন তিনি। তার মতো আরো কয়েকজন পেয়েছেন এমন রিকশা।

চাঁদপুরের ফরিদগঞ্জের মালেক গাজীর মতো আরো কয়েকজন দরিদ্র মানুষকে বিনামূল্যে রিকশা দিয়ে আয়ের পথ দেখিয়েছেন তরুণ উদ্যেক্তা আহসান হাবীব। গতকাল মঙ্গলবার বিকেলে উপজেলা সদরের কলাবাগান বাজারে এসব মানুষদের হাতে রিকশা তুলে দেন উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্ত এ এইচ এম মাহফুজুর রহমান।

এ সময় অন্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন সাংবাদিক ফারুক আহম্মদ, ফরিদগঞ্জ প্রেসক্লাবের সভাপতি নুরুন্নবী নোমান, সাধারণ সম্পাদক প্রবীর চক্রবর্তী প্রমুখ।রিকশা বিতরণকালে চালকদের উদ্দেশ্যে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা এ এইচ এম মাহফুজুর রহমান বলেন, ‘দেশে দারিদ্র্য দূর করতে সরকার নানা উদ্যোগ নিয়েছে। এর সঙ্গে ব্যক্তিগত উদ্যোগও প্রসারিত হচ্ছে। ফলে আয়ের পথ তৈরি হওয়ায় এখন থেকে এই মানুষগুলো স্বাচ্ছন্দে জীবনযাপন করতে পারবে।

এই প্রসঙ্গে আহসান হাবীব বলেন, ‘নিজের ব্যবসার লভ্যাংশের একটি অংশ সামাজিক কাজে ব্যয় করার মানসিকতা পরিবার থেকে শিখেছি। তাই আশপাশের দরিদ্র মানুষের পাশে এভাবে দাঁড়াতে পেরে আমি গর্বিত।’ তিনি বলেন, ‘আপাতত মডেল হিসেবে মাত্র পাঁচজনকে এমন সহায়তা দিয়েছি। আগামীতে আরো অনেকেই এ ধরনের সহযোগিতা দেওয়ার ইচ্ছা রয়েছে।’

 

কিউএনবি/ অদ্রি/ ১৬.০৫.১৮/ সকাল ৯.৩৫