১৯শে নভেম্বর, ২০১৮ ইং | ৫ই অগ্রহায়ণ, ১৪২৫ বঙ্গাব্দ | রাত ১২:৪৮

রাজীবের অবস্থা গুরুতর, আয়েশা সিআরপিতে

 

ডেস্ক নিউজ : রাজধানীর কাওরান বাজারে দুই বাসের রেষারেষিতে ডান হাত হারানো সরকারি তিতুমীর কলেজের ছাত্র রাজীবকে লাইফ সাপোর্টে নেওয়ার ৪৮ ঘণ্টা পেরিয়ে গেলেও শারীরিক অবস্থার কোনো উন্নতি হয়নি। তার চিকিত্সায় গঠিত মেডিক্যাল বোর্ডের প্রধান অধ্যাপক মো. শামসুজ্জামান শাহীন গতকাল শুক্রবার বলেন, তার ব্রেন কাজ করছে না। কিডনিও কাজ করছে না। হার্ট ও ফুসফুসের অবস্থার একটু উন্নতি হয়েছে। তবে তার অবস্থা আশঙ্কাজনক।

 
রাজীবকে রাখা হয়েছে ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালের আইসিইউতে, ৩০ নম্বর বেডে। নাকে-মুখে নল লাগানো, কোনো নড়াচড়া নেই, শরীরটা পড়ে আছে অচেতন। বেডের পাশে দাঁড়ানো রাজীবের ছোট ভাই মোহাম্মদ আবদুল্লাহর অসহায় চোখে বোবা কান্না। তিনি জানান, বুধবার রাত থেকে অনেক জ্বর। ডাক্তার বলেছে এই স্টেজ থেকে সব রোগী ফিরে আসে না। রাজীবের মেজো ভাই মেহেদী হাসান বলেন, আগের দিনের চেয়ে রাজীবের অবস্থা শুক্রবার আরো খারাপ হয়েছে।
 
এদিকে দুই বাসের চাপায় পড়ে মেরুদণ্ড ভেঙে যাওয়া আয়েশা খাতুনকে গতকাল শুক্রবার ল্যাবএইড হাসপাতাল থেকে সাভারের পক্ষাঘাত পুনর্বাসন কেন্দ্রে (সিআরপি) ভর্তি করা হয়েছে। ৫ এপ্রিল মেয়েকে নিয়ে রিকশায় করে নিউমার্কেট থেকে ধানমন্ডির স্কুলে যাওয়ার পথে দুই বাসের চাপায় গুরুতর আহত হন আয়েশা খাতুন। ল্যাবএইড হাসপাতালের নিউরোসার্জারি বিভাগের কনসালট্যান্ট মাসুদ আনোয়ার জানান, আয়েশা খাতুনের মেরুদণ্ড ভেঙে গিয়েছিল। সেটা অস্ত্রোপচার করে ঠিক করা হয়েছে। কিন্তু তার স্পাইনাল কর্ড ড্যামেজ হয়ে গেছে। এ কারণে কোমর থেকে পা পর্যন্ত অবশ হয়ে আছে।
 
এ ছাড়া ফার্মগেটে বাস স্টপেজে বাসের চাপায় আহত নারী রুনি আক্তারের চিকিত্সা চলছে কল্যাণপুরের ইবনে সিনা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে। ইতোমধ্যে চিকিত্সকরা জানিয়েছেন, তিনি সুস্থ হয়ে যাবেন। তার পায়ের হাড় ও হাঁটু ভেঙে যায়নি। ডান পায়ের হাঁটুর নিচে মাংস উপড়ে গেছে।
কিউএনবি/রেশমা/১৪ই এপ্রিল, ২০১৮ ইং/সকাল ১০:৪৯