১৮ই সেপ্টেম্বর, ২০১৮ ইং | ৩রা আশ্বিন, ১৪২৫ বঙ্গাব্দ | সন্ধ্যা ৭:৫৩

গোপালগঞ্জে অনির্দিষ্টকালের পরিবহন প্রত্যাহার

 

এম শিমুল খান, গোপালগঞ্জ প্রতিনিধি : কলেজ ছাত্র নিহতের ঘটনার জের ধরে গোপালগঞ্জে বাস পোড়ানোর প্রতিবাদে ও মহাসড়ক দিয়ে অবৈধ যান চলাচল বন্ধের দাবিতে জেলা বাস মালিক শ্রমিক ঐক্য পরিষদের ডাকা অনির্দিষ্টকালের পরিবহন ধর্মঘট প্রত্যাহার করা হয়েছে।

মঙ্গলবার ভোর ৬টা থেকে জেলার অভ্যন্তরীণ সড়ক গুলোতে বাস চলাচল বন্ধ ছিল। ধর্মঘটের ফলে এসব রুট দিয়ে চলাচলরত সাধারণ যাত্রীরা পড়েছিল চরম ভোগান্তিতে। ইজিবাইক, ভ্যানে-রিকশা অথবা পায়ে হেঁটে নিজ নিজ গন্তব্যে পৌঁছাতে হয়েছে তাদেরকে। অনেকে আবার গন্তব্যে যেতে না পেরে বাড়ীতে ফিরে গেছেন।

গনপতি মধু (৬০) বলেন, আমি এসেছি নাজিরপুর থেকে ব্যাসপুর যাবো পিয়াজ উঠানোর কাজে এসে দেখি গড়ি চলাচল বন্ধ। কি ভাবে যাবো বুঝে উঠতে পারছি না। আজকের দিন আমার কাজ করতে পারবো না ।

পরিবহন যাত্রী রেহানা পারভিন(৪৮) বলেন, আমি ঢাকা থেকে এসেছি গোপালগঞ্জ এসে গাড়ি আর যেতে দিচ্ছে না। কখন যে খুলনা পৌছাবো বুঝে উঠতে পারছিনা। অবরোধের জন্য আমাদের সাধারন যাত্রীদের ভোগান্তি পোহাতে হয়েছে।

রবিবার সকালে ঢাকা-খুলনা মহাসড়কের সদর উপজেলার গোপিনাথপুর নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে বাস খাদে পড়ে গেলে পলিটেকনিকের এক শিক্ষার্থীসহ দুইজন নিহত হন। ওই ঘটনায় ঢাকা-খুলনা মহাসড়ক অবরোধ করে কয়েকটি যানবাহন ভাঙচুর করে ও দুর্ঘটনা কবলিত বাসটিতে আগুন ধরিয়ে দেয় উত্তেজিত শিক্ষার্থীসহ এলাকাবাসী।

গোপালগঞ্জ জেলা মটর শ্রেমিক মালিক ঐক্য পরিষদ এর যুগ্ম সাধারন সম্পাদক মো: স্বপন বলেন, মহাসড়কে অবৈধ যান চলাচলের কারণে প্রতিনিয়ত দুর্ঘটনা ঘটছে। অবৈধ যান চলাচল বন্ধ ক্ষতি পূরন না দেওয়া পর্যন্ত জেলার সকল রুটে অনির্দিষ্টিকালে পরিবহন ধর্মঘট চলবে। তিনি আরো বলেন,আমরা প্রশাসনের কাছে গিয়েছিলাম আমাদের মামলা নেয়নি।

আমাদের গাড়ি পুড়িয়ে দিবে আমরা এর বিচার পাবো না।পুলিশ সুপার মোহাম্মাদ সাইদুর রহমান খান বলেন, আমরা শ্রমিক নেতাদের নিয়ে আলোচনায় বসে ছিলাম আলোচনার প্রেক্ষিতে অনির্দিষ্টকালের পরিবহন ধর্মঘট প্রত্যাহার করা হয়েছে।

 

 

 

 

 

কিউএনবি/সাজু/১০ই এপ্রিল, ২০১৮ ইং/সন্ধ্যা ৭:০৯