১৭ই নভেম্বর, ২০১৮ ইং | ৩রা অগ্রহায়ণ, ১৪২৫ বঙ্গাব্দ | বিকাল ৩:২৬

গাইবান্ধায় স্পিকার ড. শিরিন শারমিন চৌধুরী নারীদের জনশক্তিতে দেশের উন্নয়নের সাথে তাদের সম্পৃক্ত করতে হবে

 

জাহিদ খন্দকার,গাইবান্ধা প্রতিনিধি : জাতীয় সংসদের স্পিকার ড. শিরিন শারমিন চৌধুরী বলেন, বঙ্গবন্ধুর জন্ম না হলে বাংলাদেশ স্বাধীন দেশ হিসেবে প্রতিষ্ঠা লাভ করতে পারতো না। তিনি বলেন, নারীরা আজ দেশ উন্নয়নে কাজ করছে। প্রধানমন্ত্রীর নেতৃত্বে দেশ এগিয়ে যাচ্ছে। প্রধানমন্ত্রী সর্বক্ষেত্রে নারীদের সুযোগ করে দিয়েছেন।

নারীদের জনশক্তিতে দেশের উন্নয়নের সাথে তাদের সম্পৃক্ত করতে হবে। মেয়েদের তথ্য প্রযুক্তির মাধ্যমে শিক্ষিত করতে হবে। তাই নারী বান্ধব পরিবেশ সৃষ্টিতে সকলকে সহযোগিতা করতে হবে। দেশের উন্নয়নে নারীর কোন বিকল্প নাই।

এ জন্য বাল্যবিবাহ বন্ধ করতে হবে। এ ব্যাপারে আইন আছে। সবাইকে বাল্য বিবাহ প্রতিরোধে সামাজিকভাবে প্রতিরোধ গড়ে তুলতে হবে। তিনি মেয়ে শিক্ষার্থীদের উদ্দেশ্যে বলেন, তারা বড় শক্তি। তাদেরকেই এব্যাপারে প্রতিরোধ গড়ে তোলার ক্ষেত্রে অগ্রণী ভূমিকা রাখতে হবে।

গতকাল বুধবার বিকেলে গাইবান্ধার সাঘাটা উপজেলার ভরতখালী উচ্চ বিদ্যালয় মাঠে বাল্যবিয়ে রোধের মাধ্যমে মাতৃমৃত্যু প্রতিরোধ ও নারীর সার্বিক উন্নয়ন নিশ্চিত করণের লক্ষ্যে সচেতনতামুলক এক সভায় জাতীয় সংসদের স্পিকার ড. শিরিন শারমিন চৌধুরী এসব কথা বলেন।

গাইবান্ধা জেলা প্রশাসক গৌতম চন্দ্র পালের সভাপতিত্বে সভায় বক্তব্য রাখেন ডেপুটি স্পিকার অ্যাডভোকেট মো. ফজলে রাব্বী মিয়া, জাতীয় সংসদের হুইপ মাহাবুব আরা বেগম গিনি ও কুড়িগ্রাম-গাইবান্ধা সংসদীয় আসনের সংসদ সদস্য উম্মে কুলসুম স্মৃতি, পুলিশ সুপার মো. মাশরুকুর রহমান খালেদ, ফুলছড়ি উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান হাবিবুর রহমান, সাঘাটা উপজেলা আওয়ামী লীগের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি নাজমুল হুদা দুদু, সাঘাটা উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারন স¤পাদক আব্দুল হামিদ সরকার বাবু, গোবিন্দগঞ্জ পৌর মেয়র আতাউর রহমান, গাইবান্ধা পৌর মেয়র শাহ মাসুদ জাহাঙ্গীর কবির মিলন, গাইবান্ধা জেলা যুবলীগের সভাপতি সরদার সাহিদ হাসান লোটন প্রমুখ।

সভায় সরকারী-বেসরকারী পর্যায়ের কর্মকর্তা, মুক্তিযোদ্ধা, সাংবাদিক, বিভিন্ন বিদ্যালয়ের শিক্ষক, ছাত্রছাত্রী ছাড়াও বিপুল সংখ্যক মানুষ উপস্থিত ছিলেন।

 

 

 

 

কিউএনবি/সাজু/১৪ই মার্চ, ২০১৮ ইং/রাত ৯:০২